এক দেখাতেই উথালপাথাল মন, ১৪ বছরের সংসার ভাঙলেন নারী!

প্রকাশিত: জুন ১৬, ২০২২; সময়: ১০:২৯ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : কথায় আছে, প্রেম কাঠালের আঠা, লাগলে পরে ছাড়ে না। এই নারীর ক্ষেত্রে হয়তো সেটাই হয়েছে। তাইতো দীর্ঘ ১৪ বছরের সংসার ছেড়ে পালিয়ে আসে প্রেমিকের কাছে, কিন্তু তাকে অস্বীকার করে তাড়িয়ে দিলেন প্রেমিক।

বুধবার (১৫ জুন) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

মাত্র এক রাতের আলাপে ১৪ বছরের সংসার ভেঙে বেরিয়ে এসেছিলেন আমান্ডা ট্রেনফিল্ড নামে এক নারী। কিন্তু যার হাত ধরবেন বলে সংসার ত্যাগ করলেন আমান্ডা, তার কাছে যেতেই সেই প্রেমিক অস্বীকার করলেন তাকে। ঘটনাটি ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরে।

তার নিজের এ কর্মকাণ্ড নিয়ে একটি গোটা বই লিখে ফেলেছেন আমান্ডা। আর সেই বইটি প্রকাশ পাওয়ার পর সামনে এসেছে ঘটনাটি। বইয়ের নাম, ‘হোয়েন আ সোলমেট সেজ নো’।

বইটিতে আমান্ডা জানিয়েছেন, প্রাক্তন স্বামীর সঙ্গে একটি রেস্তরাঁয় নৈশভোজে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই জেসন নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে দেখা হয় তার।

আমান্ডা নিজেই জানিয়েছেন, জেসনকে দেখেই উথালপাথাল অবস্থা হয় তার। এমন আবেগ নাকি তিনি আগে কোনো দিন কারও জন্য অনুভব করেননি। রেস্তোরা থেকে ফেরার সময় তিনি জেসনের কানে কানে এ কথাও বলে আসেন যে, এ দেখাই শেষ দেখা নয়।

এ ঘটনার ঠিক এক মাস পর, জেসন নামক ওই ব্যক্তির সঙ্গে কোনো রকম আলোচনা না করেই আমান্ডা নিজের বিয়ে ভেঙে দেন। কিন্তু এত কাণ্ডের পরে শেষমেশ যখন আমান্ডা জেসনের কাছে যান, তখন জেসন নতুন কোনো সম্পর্কে জড়াতে অস্বীকার করেন।

এই পুরো ঘটনাটি নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তেই মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যায় পাঠকদের মাঝে। এক দল পাঠক বিষয়টি নিয়ে ব্যঙ্গ করলেও অন্য দলের মতে, আমান্ডা আদৌ জেসনের জন্য আগের বিয়ে ভাঙেননি।

হয়তো স্বামীর সঙ্গে তার সম্পর্ক এমন এক জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিল যাতে অজান্তেই তার দম বন্ধ হয়ে আসছিল। নতুন প্রেমিক আসলে তার নিজেকে খুঁজে নেওয়ার উপলক্ষ্য ছাড়া কিছুই নয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে