আওয়ামী লীগ নেতা আসাদের নেতৃত্বে রাজশাহীতে বিশাল শোডাউন

প্রকাশিত: জুন ৭, ২০২২; সময়: ১১:২৪ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেছেন, ‘বিএনপি গুজব ছড়িয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত করছে। তাদের প্রতিহত করতে, রাজপথে জবাব দেয়ার জন্য আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কর্মীরা রাজপথেই আছে।’

ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস উপলক্ষে আলোচনা ও বিএনপি কর্তৃক দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে কটুক্তি এবং প্রাণনাশের হুমকির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশে এসব বলেন আসাদুজ্জামান আসাদ। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে রাজশাহী নগরীর জয় বাংলা চত্বর (বাটার মোড়) থেকে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে জয়বাংলা চত্বরে শেষ হয়। সেখানে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুজ্জামান আসাদ আয়োজিত এই কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী অংশ নেন। যাদের মধ্যে দলে বিভিন্নভাবে কন্ঠাসা ও পদ বঞ্চিত হয়েছেন।

প্রতিবাদ সমাবেশে আসাদ বলেন, বিএনপি নেতারা দেশের জনগণের মাঝে গুজব সৃষ্টি করার সকল অপচেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের এসব অপচেষ্টা প্রতিহত করার জন্য আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মী সব সময় প্রস্তুত আছে এবং আগামীতেও থাকবে। রাজপথে জবাব দেওয়ার জন্য আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের কর্মীরা রাজপথেই আছে।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতু যখন উদ্বোধনের অপেক্ষায় দিনক্ষণ গণনা শুরু হয়েছে, ঠিক তখনই বিএনপি জামায়াত শিবির মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। এটি দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত। তারা জনগণের সাথে কোন সময়ই থাকে না। দেশের উন্নয়নে তাদের গাত্রদাহ হয় এবং জনগণের মাঝে গুজব সৃষ্টি করার সকল অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মীরা তাদের প্রতিহত করার জন্য সব সময় প্রস্তুত আছে এবং থাকবে।
প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিশাল বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্ব দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহা. আসাদুজ্জামান আসাদ।

পথসভায় আরো বক্তব্য দেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য হাবিবুর রহমান বাবু, সদস্য আলিমুল হাসান সজল, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক ফারুক হোসেন ডাবলু, সদস্য শরিফুল ইসলাম, তৌহিদ আল হোসেন তুহিন, মুন্ডুমালা পৌরসভার মেয়র সাইদুর রহমান, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সামাউন ইসলাম, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান সাগর।

উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা বদরুজ্জামান রবু, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান উল মাসুদ, জেলা যুবলীগের সহ- সভাপতি মাহমুদ হাসান ফয়সাল, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাড.আবু রায়হান মাসুদ, বড়গাছি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক রহমান মাসুম, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ক্রীড়া সম্পাদক মোক্তার হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আক্কাস আলী, জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক কামরুল হাসান, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান মেরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক পিংকু কুমার সাহা, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমুখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে