পণ্যবাহী ট্রলারডুবি, নিখোঁজ ২

প্রকাশিত: জুন ৫, ২০২২; সময়: ৬:৪৪ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বরগুনার তালতলীতে শনিবার দিবাগত গভীর রাতে পায়রা নদীর মাঝে ট্রলারের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পণ্যবাহী ট্রলারডুবে ২ শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছেন। একইসঙ্গে জোয়ারের তোড়ে ভেসে গেছে প্রায় অর্ধকোটি টাকার পণ্য।

নিখোঁজ শ্রমিকরা হলেন- বরগুনা সদর উপজেলার লাকুরতলা গ্রামের কমল সমাদ্দার (৪০), লবণগোলা গ্রামের আবদুল খালেক (৭০)। নিখোঁজদের উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিটের ডুবুরি দল।

শনিবার মধ্যরাতে বরগুনা থেকে তালতলী যাওয়ার পথে পায়রা নদীর চাড়াভাঙা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ট্রলারটি বরগুনা থেকে তালতলী সাপ্তাহিক বাজারে নির্ধারিত হাটের পণ্য নিয়ে যাচ্ছিল।

ট্রলারে থাকা শ্রমিকরা জানান, শনিবার বরগুনা ঘাট থেকে এফবি মায়ের দোয়া নামের এটি পণ্যবাহী ট্রলার তালতলীতে পণ্য নিয়ে যাওয়ার জন্য রওনা দেয়।

এ সময় ট্রলারে চাল, ডাল, তেল, মরিচ, আলুসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় প্রায় ৫০ লাখ টাকার পণ্য ছিল। ট্রলারটি চাড়াভাঙা নামক স্থানে গেলে হঠাৎ ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়।

এ সময় নদীতে ঢেউ থাকায় ট্রলারের মধ্যে পানি ঢুকে ট্রলারটি তলিয়ে যায়। এ সময় প্রাণ বাঁচাতে ট্রলারে থাকা মাঝি ও শ্রমিকসহ ৭ জন নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে সাঁতরে তীরে ওঠার চেষ্টা করেন। তবে ৫ জন তীরে উঠতে পারলেও দুইজন নিখোঁজ রয়েছেন।

নদীতে ঝাঁপ দিয়ে তীরে ফেরা আবদুর রব মৃধা বলেন, আমরা রাতে পণ্যবাহী ট্রলার নিয়ে বরগুনা থেকে তালতলীর উদ্দেশ্যে রওনা দেই।

পরে রাত অনুমান ১২টার দিকে চাড়াভাঙ্গা থেকে বগীবাজারের দিকে পাড়ি দিলে হঠাৎ ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় নদীতে ঢেউ থাকায় পানি এসে ট্রলারের উঠে যায়।

তখন সেই পানি ফেলানোর (অপসারণ) জন্য ওই দুইজন ট্রলারের ভিতরে ব্রিজের মধ্যে যায়, কিন্তু দ্বিতীয়বার আবার ঢেউ আসলে ট্রলারটি আস্তে আস্তে পানির নিচে চলে যায়। আমরা পাঁচজন বেঁচে ফিরলেও ব্রিজের ভিতরে থাকা দুইজন উঠতে পারেননি।

তালতলী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. আকতার উদ্দিন বলেন, আমারা সংবাদ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে এসেছি। রাতেই একটি ট্রলার নিয়ে নদী থেকে যতটুক সম্ভব পণ্য উদ্ধার করেছি। তবে এখনো নিখোঁজদের সন্ধান পাওয়া যায়নি। ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিটের ডুবুরি দল উদ্ধারের জন্য কাজ করছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে