সুপ্রিমকোর্টে তথ্য কর্মকর্তা চেয়ে রিট

প্রকাশিত: মে ২৬, ২০২২; সময়: ২:৪২ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সুপ্রিমকোর্টে তথ্য প্রদান ইউনিট চালু এবং কর্মকর্তা নিয়োগের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে রিট করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) জনস্বার্থে আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির এ রিট দায়ের করেন। এর আগে গত ১৬ মে এ বিষয়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়। জবাব না পেয়ে রিটটি দায়ের করেন তিনি।

এতে বলা হয়, অবাধ তথ্য প্রবাহ এবং জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিতকরণের নিমিত্তে বিধান করার লক্ষ্যে তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ (২০০৯ সালের ২০ নম্বর আইন) প্রণয়ন করা হয়েছে।

আইনের প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানে চিন্তা, বিবেক ও বাক-স্বাধীনতা নাগরিকগণের অন্যতম মৌলিক অধিকার হিসেবে স্বীকৃত এবং তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার চিন্তা, বিবেক ও বাক-স্বাধীনতার একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ।

জনগণ প্রজাতন্ত্রের সকল ক্ষমতার মালিক ও জনগণের ক্ষমতায়নের জন্য তথ্য অধিকার নিশ্চিত করা অত্যাবশ্যক। জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিত করা হলে সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও সংবিধিবদ্ধ সংস্থা এবং সরকারি ও বিদেশি অর্থায়নে সৃষ্ট বা পরিচালিত বেসরকারি সংস্থার স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধি পাবে, দুর্নীতি হ্রাস পাবে ও সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হবে।

এতে আরও বলা হয়, আইনের ধারা ২(খ)(অ) এ প্রদত্ত সংজ্ঞা অনুসারে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট এই আইনের আওতাধীন একটি কর্তৃপক্ষ। ওই আইনের ধারা ১০ অনুযায়ী তথ্য সরবরাহের নিমিত্তে প্রত্যেক কর্তৃপক্ষ তথ্য প্রদান ইউনিটের জন্য একজন করে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিয়োগ করবে। উক্ত আইনের বিধানের প্রতিপালনে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়সহ সকল সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আইন প্রণয়নের এক যুগেরও অধিক সময় অতিবাহিত হলেও বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্টে এমন কোনো কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হয়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে