তথ্যের অভাবও সম্পদ বণ্টনে বৈষম্যের কারণ

প্রকাশিত: মে ২৩, ২০২২; সময়: ১১:৩৭ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সঠিক তথ্যের অভাবেও জাতীয় সম্পদ বণ্টনে বৈষম্য হচ্ছে। দেশের কোন অঞ্চলে দারিদ্র্য কত, আর্থসামাজিক অন্যান্য সূচকের কী পরিস্থিতি- এ-সংক্রান্ত তথ্যের ভিত্তিতে সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা নেওয়া হয়।

সামাজিক সুরক্ষার বিভিন্ন কর্মসূচির বরাদ্দ দেওয়া হয়। হালনাগাদ তথ্যের অভাবে সঠিক বরাদ্দ সম্ভব হচ্ছে না। দেশের এক অঞ্চলের সঙ্গে অন্য অঞ্চলের বৈষম্যের এটিও অন্যতম কারণ।

দারিদ্র্য বিমোচন এবং অপুষ্টির ম্যাপিং কৌশল-সংক্রান্ত দুটি প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে গতকাল রোববার দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞরা এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) এবং বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (এফএও) যৌথভাবে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেন, সরকারের সব উন্নয়ন লক্ষ্যের মধ্যে দারিদ্র্য নিরসন এক নম্বর এজেন্ডা। এর সঙ্গে অন্যান্য উন্নয়ন লক্ষ্য জড়িত। তবে হালনাগাদ তথ্যের অভাবে সব সময় সঠিক উন্নয়ন পরিকল্পনা নেওয়া সম্ভব হয় না।

সম্পদ বিলি-বণ্টনেও বৈষম্য হয়। টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট (এসডিজি) প্রসঙ্গ উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন পর্যন্ত এসডিজির অর্জন পরিমাপের জন্য মাত্র এক-তৃতীয়াংশ তথ্য রয়েছে। বাকি তথ্য নেই। এ বিষয়ে জাতীয় পরিসংখ্যান সংস্থা বিবিএসকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

বাংলাদেশ এফএওর কান্ট্রি ডিরেক্টর জেইন পিয়ার্স বলেন, দারিদ্র্য বিমোচন এবং অপুষ্টি থেকে সুরক্ষায় জাতীয় সম্পদের বৈষম্যহীন বণ্টন প্রয়োজন।

জলবায়ু পরিস্থিতি এবং এ-সংক্রান্ত ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে জানা, খাদ্য নিরাপত্তা এবং অতি ঝুঁকিতে থাকা নারী এবং শিশুদের প্রকৃত অবস্থা জানা এবং তাদের কী প্রয়োজন তা বোঝা এবং সে অনুযায়ী পরিকল্পনা নিতে সঠিক এবং হালনাগাদ তথ্য প্রয়োজন রয়েছে।

পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে তথ্যের চাহিদা বেড়েছে। তাই বিবিএসের সক্ষমতা বাড়ানো প্রয়োজন।

বিবিএসের মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন আইসিডিডিআরবির নির্বাহী পরিচালক তাহমিদ আহম্মেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইএসআরটির অধ্যাপক সাইয়েদ শাহাদাত হোসেন, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের উপসচিব দিপঙ্কর রায় ও বিবিএসের পরিচালক মাসুদ আলম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে