অল্প সময়েই পৌরবাসীর কাছে জনপ্রিয় কাঁটাখালির ভারপ্রাপ্ত মেয়র

প্রকাশিত: মে ২৩, ২০২২; সময়: ১১:৩৮ am |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর কাঁটাখালি পৌরসভায় ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব নেয়ার মাত্র ৬ মাসেই পৌরবাসীর কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন আনোয়ার সাদাত নান্নু। মেয়র হিসাবে দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকে পৌরবাসীর জন্য দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। বিভিন্ন সমস্যা ও সুখ-দুঃখে পৌরবাসীর পাশে রয়েছেন নান্নু। পৌরসভার সকল কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে পৌরবাসীর সেবায় পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তিনি।

এর মাঝেই একটি কুচক্র মহল ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসাবে যোগদানের পর থেকেই তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার ও তার সুনাম ক্ষুন্ন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। এমন কি গণমাধ্যম কর্মীদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে অপপ্রচার করছে বলে অভিযোগ করেন সাদাত হোসেন নান্নু।

জানা গেছে, গত ১২ ডিসেম্বর ২০২১ ইং তারিখ থেকে কাঁটাখালি পৌর সভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসাবে দায়িত্ব গ্রহন করেন কাঁটাখালি পৌর সভার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার সাদাত নান্নু। এর মধ্যে নিজের কর্ম, সততা এবং নিষ্ঠার সাথে দিন রাত পৌরবাসীর সেবায় কাজ করে চলেছেন তিনি। এতে অল্প সময়ের মধ্যে পৌরবাসীর মন জয় করে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন।

দলমত নির্বিশেষে সবার প্রিয় ব্যক্তিত্ত হিসাবে স্থান করে নিয়েছেন এরই মধ্যে তিনি। আওয়মী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতা কর্মীদের গুড বুকে স্থান পেয়েছেন কাঁটাখালির ভারপ্রাপ্ত মেয়র আনোয়ার সাদাত নান্নু। এর মধ্যে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সিদ্ধান্ত মতে কাঁটাখালি পৌর আওয়ামী লীগের কমিটির গুরুত্বপূর্ণ পদে রাখা হয়েছে তাকে।

উল্লেখিত, কাঁটাখালি পৌরসভার বরখাস্তকৃত মেয়র আব্বাস আলীর অনিয়ম ও দুর্নিতীর কারনে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলো কাঁটাখালি পৌরবাসী। মেয়র আব্বাসের প্রতি পৌরসভার বেশির ভাগ কাউন্সিলর অসন্তষ্ঠ ও অনাস্থা অভিযোগ ছিলো পাহাড় সমান।

গত ১২ ডিসেম্বর ২০২১ ইং তারিখে স্থানিয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রাণলয়ের উপসচিব ফারজানা মান্নান সাক্ষরিত এক আদেশে কাঁটাখালি পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীকে সাময়িক বরখাস্ত করায় স্থানীয় সরকার আইন বিধি মোতাবেক প্যনেল মেয়র ১ আনোয়ার সাদাত নান্নুকে প্রশাসনিক ও আর্থিক ক্ষমতা প্রদান করে ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসাবে দায়িত্ব প্রদান করা হয়।

কাঁটাখালি পৌরসভার কাউন্সিলরবৃন্দরা বলেন, ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসাবে যোগ্য নান্নু। ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণের পরেই তিনি পৌর এলাকার প্রধান প্রধান সমস্যা গুলো উল্লেখ করেন। সকল কাউন্সিলরবৃন্দ কে সাথে নিয়ে পৌরবাসীর সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন।

এর মধ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে পৌর সভার রাস্তা-ঘাট উন্নয়নের ব্যাপারে উদ্যোগ নিয়েছেন। পৌর এলাকার ড্রেনেজ সমস্যা, জলাবদ্ধতা সমস্যা নিরসনসহ পৌর এলাকা সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্যও কাজ করে যাচ্ছেন। পৌর বাসীর বিভিন্ন সমস্যা দ্রুত সমাধান ও পৌর সভার পক্ষ থেকে পৌর বাসীকে প্রত্যাশিত সেবা প্রদানসহ নানা কাজে নিজেকে নিয়জিত রেখে মাত্র ৬ মাসেই পৌরবাসীর প্রিয় ও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন তিনি।

পৌরবাসী বলেন, ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসাবে যোগ্য নান্নু দায়িত্ব নেওয়ার পর তিনি এলাকায় সার্বিক খোঁজ খবর রাখছেন। বিভিন্ন জায়গা পরিদর্শন করে সমস্যা সমাধান করছেন। এছাড়াও জনগণের কথা তিনি মনোযোগ দিয়ে শুনে তা বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করছেন বলে জানান।

কাঁটাখালি পৌর যুবদলের আহব্বায়ক ও পৌর নির্বাচনে বিএনপির সাবেক মেয়র প্রার্থী মো মাসুদ রানা বলেন, আনোয়ার সাদাত নান্নু কোন দিন বিএনপির কোন অঙ্গ সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত ছিলো না।

কাঁটাখালি পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক আহব্বায়ক হজরত আলী বলেন, নান্নু ২০১৫ সালে পৌর সভার ৬ নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রার্থী ছিলেন। সে ছোট থেকেই সক্রিয় ভাবে আওয়ামী লীগের রাজনিতির সাথে জড়িতো তার পরিবারসহ।

মেয়র হিসাবে যোগদানের পর থেকে স্বাধীনতা বিরোধী চক্র তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে। তাকে বিএনপির  সমর্থক হিসাবে প্রচার করার অপপ্রচার চালাচ্ছে।

আনোয়ার সাদাত নান্নু বলেন, জনগণের সেবা করার জন্য আমি ছোট থেকে রাজনীতিতে এসেছি। জনগণের পাশে থেকে তাদের নানা সমস্যা সমাধানের চেষ্টায় নিজেকে গড়ে তুলেছি। আমি ছোট বেলা হতে পিতার মুখ থেকে মুক্তিযুদ্ধের গল্প শুনতে শুনতে বড় হয়েছি। জেনেছি সেই মহান নেতা বাংলার হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শ্রেষ্ঠত্বের অহংকারে আমি গর্বিত। তার অনুপ্রেরণায় আমার এ কর্মময় জীবনে অনেক স্বপ্ন চিন্তা-চেতনাকে শতভাগ সফল করার প্রয়াস অব্যাহত থাকবে।

তিনি আরো বলেন, আল্লাহর অশেষ রহমতে আপনাদের সার্বিক সহায়তায় আমার চিন্তা-চেতনা ও সৃষ্টিশীল ধ্যান-ধারনা বাস্তবায়নে আমি সর্বদা অবিচল। সন্ত্রাস, দুর্নিতী, অন্যায়, অত্যাচার, নিপীড়ন, মাদকমুক্ত, শোষণহীন সমাজ প্রতিষ্ঠাই হচ্ছে আমার মূল লক্ষ্য। ডিজিটাল সেবা পৌছে দেয়ার লক্ষ্যে দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তথা ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন ও প্রত্যয় নিয়ে কাঁটাখালি পৌরসভাও অতিশীঘ্রই কাংখিত লক্ষ্যে পৌছে যাবে ইনশাল্লাহ।

তিনি আরো বলেন, ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসাবে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে একট কুচক্র মহল স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি আমার সুনাম ক্ষুন্ন করতে উঠে পড়ে লেগেছে। সাম্প্রতিক গণমাধ্যম কর্মীকে মিথ্যা ও বিভ্রান্ত এবং উদ্দেশ্য মূলক ভাবে আমার পরিবার ও রাজনৈতিক কর্মকান্ড নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার করছে। আমি কোন দিন স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি কোন দলের সাথে জড়িত ছিলাম না। আমার বাবার দেখানো আদর্শে ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকেই প্রাধান্য দিয়ে জনগনের মন জয় করে বিপুল ভোটে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হয়েছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া
  • কলকাতার ৮ পয়েন্টে দেখানো হবে পদ্মা সেতুর লাইভ উদ্বোধন
  • কর্মীকে পেটালেন রাবি ছাত্রলীগ নেতা
  • গোদাগাড়ীতে প্রবাসীর স্ত্রীর আত্নহত্যা
  • নাটোরে ভুল অপারেশনে গৃহবধুর মৃত্যুর অভিযোগ
  • পদ্মা সেতুর ওপর যা যা করা যাবে না
  • আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে এসি, আকাশ ডিটিএইচ
  • লালপুরে সন্ত্রাসী হামলায় আহতের পরিবার প্রাণভয়ে নিখোঁজ
  • গভীর রাতে রাবির আবাসিক ছাত্রকে বের করে দিল ছাত্রলীগ
  • বন্যার পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
  • বোরকা পরে শ্বশুরবাড়ির তিনজনকে কুপিয়েছে মুরগি বিক্রেতা
  • রাজশাহীর বাজারে বেড়েছে সবজি ও মাছের দাম
  • আইপিইএফে যোগ দেওয়ার কথা ভাবছে বাংলাদেশ
  • ট্রাক কেড়ে নিল মা-ছেলের প্রাণ
  • বন্যার পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু
  • উপে