শাহজাদপুরে ধর্ষন মামলার আসামী নৌকা পাওয়ায় নিন্দা

প্রকাশিত: মে ১৭, ২০২২; সময়: ৭:৫৬ pm |
শাহজাদপুরে ধর্ষন মামলার আসামী নৌকা পাওয়ায় নিন্দা

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার সোনাতনী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ধর্ষন মামলার আসামী বর্তমান চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান পুনরায় নৌকা মনোনয়ন পাওয়ায় এলাকা জুড়ে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় বইছে।

স্থানীয়রা বলছে, সরকারী প্রকল্পে নয়-ছয় করা এই চেয়ারম্যান এলাকায় একজন বিতর্কিত ব্যক্তি। অথচ এলাকায় অনেক ভাল মানুষ ছিল। যারা সমাজে ও আওয়ামীলীগে গ্রহনযোগ্য। তাদের ব্যতি রেখে কেবল আর্থিক বিবেচনায় তাকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। আগামী ১৫ জুন অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠ হলে অবশ্যই তিনি জামানত বাজায়াপ্ত হবেন। এদিকে জেলা আওয়ামীলীগ বলছে বিষয়টি তারা অবহিত ছিলেন না। তবে তা এখন ভাববার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

জানা যায়, আগামী ১৫ জুন ৮ম দফায় ইউপি নির্বাচনে শাহজাদপুর উপজেলাধীন সোনাতনী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। এজন্য দলের গ্রহনযোগ্য ও নিবেদিত ৫ জন নেতার পাশাপাশি বর্তমান চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান আওয়ামীলীগের মনোনয়ন দাবী করেন। জেলা থেকে সবার তালিকাও পাঠানো হয় কেন্দ্রে। গত শুক্রবার প্রকাশিত মনোনয়ন তালিকায় দেখা যায় লুৎফর রহমান আবারো দলীয় মনোনয়ন পেয়েছে। এরপর থেকেই এলাকায় বিতর্কের ঝড় বইছে।

এ ব্যাপারে সোনাতনী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আবুল হাসান মিয়া লিটন জানান, ধর্ষন মামলার প্রধান আসামী সহ বিতর্কিত নানা কাজের সাথে জড়িত হলেও আগামী সোনাতনী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে লুৎফর রহমানকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। এতে পুরো ইউনিয়নবাসী বিব্রত। তিনি জানান, গত ২০২০ সালে ৬ নভেম্বর বাঙ্গালা চরে গৃহবধু আঞ্জুয়ারা খাতুনকে ধর্ষন করা হয়। এ মামলাটি হলো শাহজাদপুর থানার এফ/আর নম্বর-৭/২৮৩, তারিখ ৮/১১/২০, জি,আর নং-২৮৩। পরবর্তীতে এ মামলায় পুলিশ ৫ জনের নাম দিয়ে চার্জশিট দেয়।

এতে ৩ নম্বর আসামী করা হয়েছে নৌকা পাওয়া লুৎফর রহমানকে। তিনি জামিনে থাকলেও তা বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে। এজন্য তাকে নৌকার মনোনয় যাতে না দেয়া হয় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির কাছে গত ৭ মে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। তার পরও ঐ বিতর্কিত ব্যক্তিকে শুধু আর্থিক বিবেচনায় নৌকার মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। তিনি সুষ্ঠ নির্বাচন হলে শুধু হারবেনই না, জামানত বাজেয়াপ্ত হবে।

স্থানীয় সোনতনী গ্রামের আবুল হোসেন, ইয়াসিন আলী জানান, আমরা চেয়ারম্যান লুৎফর রহমানের ব্যবহারে অতিষ্ঠ। তিনি টাকা ছাড়া কিছু বোঝেন না। কিভাবে তিনি নৌকা পেলেন? তা বিশ্বাস করাই দ্বায়। অধিকাংশ ভোটাররা তাকে ভোট দেবেনা। প্রকৃত পক্ষে আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরাও তাকে মেনে নিচ্ছেনা।

এদিকে অভিযোগের বিষয়ে সোনাতনী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে নৌকা পাওয়া বর্তমান চেয়ারম্যান লুৎফর রাহমানের ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর ০১৭১৬-০১৩৩৭৮ বার-বার যোগাযোগ করলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুস ছামাদ তালুকদার জানান, লুৎফর রাহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়ে আমার জানা নেই। তবে ধর্ষন মামলার অভিযুক্ত আসামী হয়ে কিভাবে নৌকা পেল তা এখন ভাবার বিষয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • নওগাঁ পলিটেকনিট ইনস্টিটিউটে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল উদ্বোধন
  • পাবনায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩
  • সিরাজগঞ্জে জাতীয় শোক দিবসের চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতা
  • বেপরোয়া মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেল বৃদ্ধার
  • রাতে কী ঘটেছিল সেই শিক্ষিকার বাসায় জানালেন নৈশপ্রহরী
  • ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় বগুড়া-রংপুর চার লেনের নির্মাণকাজ বন্ধ
  • উল্লাপাড়ার সলপ কলেজের সভাপতি হলেন সাবেক রাষ্ট্রদূত চৌধুরী ইকতিয়ার
  • আত্রাইয়ে মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেপ্তার ৪
  • জীবিত অবস্থায় তো বেহেশত পাওয়া যায় না : বাণিজ্যমন্ত্রী
  • বদলগাছীতে নিখোঁজের ২দিন পর বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার
  • বদলগাছীতে কাঁচা মরিচের ডাবল সেঞ্চুরি
  • তাল কুড়াতে গিয়ে প্রাণ গেল যুবকের
  • কলেজছাত্রকে বিয়ে করা শিক্ষিকার মরদেহ উদ্ধার, স্বামী আটক
  • বিয়ের আসর থেকে ভুয়া কাজী মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার
  • শিবগঞ্জে ফ্রি চিকিৎসা ও ঔষুধ প্রদান
  • উপরে