নাটোর শহরের প্রধান সড়ক প্রশস্তকরণ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে

প্রকাশিত: ২৯-০৯-২০১৭, সময়: ১৭:১৮ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর : নাটোর শহরের মধ্যে দিয়ে যাওয়া প্রধান সড়কটি অবশেষে প্রশস্তকরন করা হচ্ছে। নাটোরের মানুষদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরণ হতে যাচ্ছে আগামী অক্টোবর মাস থেকে। শহরের ৫ দশমিক ৮৬ কিলোমিটার প্রধান সড়ক প্রশস্তকরণ প্রকল্পের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৮ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। নাটোরের সড়ক ও জনপথ বিভাগ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। প্রকল্পের দরপত্র সম্পন্ন হওয়ার পর দরপত্র মূল্যায়ন প্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ে চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। ৮০’র দশক হতে কাঙ্খিত এই সড়ক প্রশস্তকরণ কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে জানতে পেরে নাটোরবাসী অত্যন্ত আনন্দিত।

নাটোর সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, শহরের বড় হরিশপুর বাইপাস শংকর চৌধুরী চত্বর থেকে বনবেলঘরিয়া বাইপাস পর্যন্ত বিদ্যমান সড়ককে মিডিয়ান সহ ১২দশমিক ২০ মিটার অর্থাৎ সড়কের মাঝের ডিভাইডারের উভয় দিকে ১৮ ফুট করে রাস্তা প্রশস্তকরণ করা হবে। এছাড়া রাস্তার উভয় দিকে ১দশমিক ২ মিটার অর্থাৎ চার ফুট করে ড্রেনসহ ফুটপাত থাকবে। উভয় দিকের মোট ৩৬ ফুট রাস্তা ও আট ফুট ফুটপাত এবং চার ফুট ডিভাইডারসহ সড়কের মোট প্রশস্ততা হবে ৪৮ ফুট। সড়কের উভয় দিকের প্রকল্প বাস্তবায়নে জমি অধিগ্রহণের প্রয়োজন না হলেও রাস্তার উভয় দিকে কিছু অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ এবং বৈদ্যুতিক খুঁটি ও পানি সরবরাহ লাইন বসানো হবে।

নাটোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম প্রামানিক বলেন, দরপত্র মূল্যায়ন প্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ের চূড়ান্ত অনুমোদন পেলে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে পারফরমেন্স সিকিউরিটি গ্রহন করে কার্যাদেশ প্রদান করা হবে। চলতি অর্থ বছরে প্রকল্পের ব্যয় নির্বাহের জন্যে মন্ত্রণালয় ইতোমধ্যে ১৫ কোটি টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। আগামী অক্টোবর মাস থেকে রাস্তার কাজ শুরু করে ২০১৯ সালের ৩০ জুন এর মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ হবে বলে তিনি আমা করছেন। সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আরো বলেন, প্রকল্পাধীন রাস্তার দু’ধারে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড ও নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ১৯৬ টি বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থানান্তরের জন্যে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড, নাটোরকে ৯১ লাখ টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে এবং এ সংক্রান্ত দরপত্র প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। নাটোর পৌরসভার মাধ্যমে পানি সরবরাহ লাইন স্থানান্তরের প্রক্রিয়াও খুব শিঘ্রি শুরু করার ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এদিকে শহরের সড়ক প্রশস্তকরণ প্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে জেনে শহরবাসী স্বস্তি প্রকাশ করেছেন। শহরের মানুষ মনে করেন, এর ফলে শহরের নিত্যদিনের যানজট সমস্যার সমাধান হবে এবং মানুষের মূল্যবান কর্মঘন্টার অপচয় রোধ হবে। নাটোর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতি আমিনুল হক বলেন,প্রশস্ত সড়ককে কেন্দ্র করে নাটোরের অন্যান্য উন্নয়ন পরিকল্পনার উদ্যোগ নেয়া সম্ভব হবে। চলমান ব্যবসা বাণিজ্যে গতিশীলতা আসবে, বৃদ্ধি পাবে এর পরিসর। জীবনযাত্রার মান উন্ন্য়ন হবে। চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সাবেক সভাপতি আব্দুল মান্নাফ বলেন, শহরের প্রধান সড়ক প্রশস্তকরণ কার্যক্রম শুরু হলে জেলা শহরে বাঁশের ডিভাইডার দিয়ে ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রনের দুর্নাম ঘুচবে! শহর হয়ে উঠবে নান্দনিক।

হোমিও চিকিৎসক সৈয়দ আব্দুর রশীদ বলেন, সড়কটি বড় হলে শহরে চলাচলকারী মানুষের নির্বিঘ্ন যাতায়াতের পাশাপাশি ব্যবসা বাণিজ্যের পরিধিও বাড়বে। তবে উভয় দিকে থাকা পৌরসভার রাস্তাগুলো প্রশস্ত করা হলে সুফলের পরিধি হবে শতভাগ। এজন্য পৌরসভার উদ্যোগ গ্রহণ করা প্রয়োজন। একই মতামত জানিয়ে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সাজেদুল আলম খান বুড়া চৌধুরী বলেন, কলকাতার সমসাময়িক পুরনো নাটোর পৌরসভার উন্নয়ন পরিকল্পনায় রাস্তাগুলোর প্রশস্তকরণ এখন সময়ের দাবি।

পৌর মেয়র ঊমা চৌধুরী জলি এ ব্যাপারে বলেন, শহরের মানুষ চাইলে পৌরসভার রাস্তাগুলো প্রশস্তকরণের উদ্যোগ নেয়া যেতে পারে।
নাটোর নবাব সিরাজ-উদ্-দৌলা সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর আব্দুল কুদ্দুস মৃধা বলেন, শহরে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বহুগুণে বেড়েছে। সড়ক প্রশস্ত হলে শিক্ষার্থীর চলাচল নিরাপদ হবে। পাশাপাশি শহরের সৌন্দর্য্যও বাড়বে।

নাটোর জেলা পুলিশের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মাহমুদ উন নবী বলেন, শহরের প্রধান সড়ক প্রশস্ত হলে অনায়াসে ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রন করা সম্ভব হবে, মানুষের চলাচল হবে নির্বিঘ্ন।

নাটোর সদর আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম শিমুল বলেন, শহরের প্রধান সড়ক প্রশস্তকরণের পাশাপাশি রানী ভবানী রাজবাড়ীকে পূর্ণাঙ্গ পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা ও শহরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত নারদ নদ সংস্কার করে উভয় পাশে চলাচলের ব্যবস্থা করে পরিকল্পিত শহর গড়ার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারলে সকলের কাছে ঐতিহ্যবাহী নাটোর হবে আদরনীয় শহর।

Leave a comment

আরও খবর

  • কেঁচো সার তৈরীতে সফল চারঘাটের কৃষক কুদ্দুস
  • ৩৫০০ টনের স্প্যানে দৃশ্যমান পদ্মা সেতু
  • ধান গবেষণা ইনস্টিটিউটের নতুন ধান ব্রি ৮১
  • জমিতে বায়োচার ব্যবহার ফসলের ফলনে উজ্জল সম্ভাবনা
  • দৃশ্যমান হলো স্বপ্নের পদ্মা সেতু
  • নাটোর শহরের প্রধান সড়ক প্রশস্তকরণ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে
  • বজ্রপাত থেকে বাঁচতে তানোরে এক লাখ তাল বীজ রোপন
  • রাজশাহীর পদ্মার তীরে ডিজিটাল বাংলাদেশের হাতছানি
  • পদ্মাপাড়ে ডিজিটাল ইকোনমিক হাবের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী
  • মোহনপুর-নাটোর সড়ক নির্মাণে ১৮২ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন
  • দূর্গাপুরে সোলার সিস্টেম প্রশাসনিক ভবন উদ্বোধনের অপেক্ষায়
  • দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক ৭ কোটি ৩৩ লাখ
  • রাজশাহীতে মজুদ সাড়ে ৩ লাখ কোরবানির পশু
  • আরও ১ হাজার ‘শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব’ হচ্ছে
  • রাজশাহীতে অতিরিক্ত ২৬ হাজার টন মাছ উৎপাদন
  • উপরে