ভাগ্যের কাছেই হেরে গেল নিউজিল্যান্ড

ভাগ্যের কাছেই হেরে গেল নিউজিল্যান্ড

প্রকাশিত: 15-07-2019, সময়: 01:16 |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ইতিহাসের মাত্র তৃতীয় দল হিসেবে টানা দুটি ফাইনাল হারল নিউজিল্যান্ড। অথচ এই টুর্নামেন্টের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত প্রতিটা মুহূর্ত শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে লড়ে গেছে তারা। সামান্য পুঁজি নিয়ে বারবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। ফাইনালেও লড়ে গেল কেন উইলিয়ামসনের দল। নির্ধারিত ৫০ ওভারের পর সুপার ওভারও টাই! নিউজিল্যান্ড হারেনি, কিন্তু চ্যাম্পিয়নও হতে পারল না!

মাত্র কয়েকটা ইঞ্চির ব্যবধান। নিউজিল্যান্ড আর বিশ্বকাপ শিরোপার মধ্যে শেষ পর্যন্ত ব্যবধান হয়ে দাঁড়াল ওই কয়েকটা ইঞ্চি। মার্টিন গাপটিল দৌড়ে দুটো রান পুরো করতে পারলে ট্রফিতে ইংল্যান্ড নয়, বরং লেখা হতো নিউজিল্যান্ডের নাম। কিন্তু ভাগ্য যেদিন পাশে থাকে না, সেদিন যে কোনো কিছুতেই কোনো কাজ হয় না!

ইংল্যান্ডের কাছে নয়, নিউজিল্যান্ড তো হেরে গেল ভাগ্যের কাছেই। নইলে সুপার ওভারেও ইংল্যান্ডের সমান রান করেও কেন পরাজিত বীর হয়ে মাথা নিচু করে মাঠ ছাড়তে হবে নিশাম-গাপটিলদের! কেনই বা ভাগ্যের খেয়ালি শিকার হয়ে শেষ ওভারে ওরকমভাবে চারটি অতিরিক্ত রান পাবে ইংল্যান্ড!

খেলাটা হয়তো শেষ ওভার পর্যন্ত গড়াতই না, যদি ইংল্যান্ডের ইনিংসের শেষ ওভারে ভাগ্য ও রকমভাবে বিদ্রূপ না করত নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে। ৩ বলে দরকার ৯ রান, স্ট্রাইকে বেন স্টোকস। ওদিকে বল হাতে ট্রেন্ট বোল্ট। চতুর্থ বলটা ইয়র্কার লেংথেই করেছিলেন বোল্ট, পড়িমরি করে কোনো রকমে দুই রানই পূর্ণ করতে পারছিলেন না স্টোকস।

অথচ বাউন্ডারি থেকে করা গাপটিলের থ্রোটা উইকেট কিপার পর্যন্ত না পৌঁছে স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারি হয়ে গেল! যেখানে দুই রানই হয় না, সেখানে ওই বলে ইংল্যান্ড পেয়ে গেল ছয়টির রান! ইংল্যান্ডের দরকার তখন ২ বলে ৩।

অথচ ওই অবস্থাতেও আশা ছাড়েনি কেন উইলিয়ামসনের দল। পঞ্চম বলে দুই নিতে গিয়ে রান আউট আর্চার, কিন্তু স্ট্রাইকে ঠিকই ফিরলেন স্টোকস। শেষ বলে ২ নিলেই চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড, এমন সমীকরণের সামনে দাঁড়িয়েও চাপে ভেঙে পড়েনি নিউজিল্যান্ড। শেষ বলে দুই নিতে গিয়ে এবার রান আউট স্টোকস, ফাইনাল হলো টাই!

উপরে