সঠিক সময়ে পাঠদান করানোর আহ্বান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর

সঠিক সময়ে পাঠদান করানোর আহ্বান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ১৬-১১-২০১৯, সময়: ১৮:৪১ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : কারিগরি শিক্ষাসহ সকল শিক্ষা ব্যবস্থাকে যুগোপযোগী করে গড়ে তুলছে সরকার। সঠিক সময়ে বেতন ভাতা পাচ্ছেন শিক্ষক কর্মচারী। শিক্ষা প্রতিষ্টানে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করা হচ্ছে। নতুন ভবন নির্মাণসহ মাল্টি মিডিয়া ক্লাস রুম চালু হচ্ছে। শিক্ষকদের উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

দেশের বর্তমান জনসংখ্যার তুলনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনেক বেশি হলেও নতুনভাবে ২ হাজার ৭৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্টানকে এমপিওভুক্ত করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই দেশের সকল উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে। মোজাহার হোসেন মহিলা ডিগ্রী কলেজের ৪ তলা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর পরবর্তী বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির বাঘা উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) দুপুরে মোজাহার হোসেন মহিলা ডিগ্রী কলেজ মাঠে কলেজ অধ্যক্ষ নছিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সরকার অনুমোদিত নামী দামি শহরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি না করে এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সন্তানদের ভর্তির জন্য অভিভাবকদের আহ্বান জানান মন্ত্রী।

ভালো ফলাফলের জন্য শিক্ষকদেরও সময় মতো ক্লাসে এসে পাঠদান করানোর তাগিদ দিয়ে মন্ত্রী আরো বলেন, আপনাদের সততা, নিষ্ঠা ও উপদেশ শুধু একজন ভালো শিক্ষার্থীই তৈরী করবে-না, শিক্ষার গুনগতমান একজন শিক্ষিত মানুষের নিয়ামত হিসাবে কাজ করবে। যে প্রতিষ্ঠান আগামিতে ভাল ফালফল অর্জন করবে তাদেরকে পুরুস্কৃত করা হবে।

এছাড়াও বর্তমান সরকার দেশের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে শিক্ষিত বেকারদের জন্য (টি.টি.সি) প্রশিক্ষন চালু করেছেন। এই প্রশিক্ষনের মাধ্যমে বিদেশে চাকরির ব্যবস্থা হবে এবং যারা চাকরি পাবে তাদের সর্বনিম্ন বেতন হবে ১ লক্ষ টাকা। দেশের উন্নয়নকে যারা বাধাগ্রস্থ করবে কিংবা দুর্ণীতির সাথে জড়িত হবে, তাদের কোন ছাড় নেই। এর আগে বাঘায় মোজাহার হোসেন মহিলা ডিগ্রী কলেজের নতুন ৪ তলা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি।

কলেজের উপাধ্যক্ষ ওয়াহেদ সাদীক কবিরের সঞ্চালিত সভায় শিক্ষক নেতারা বলেন, শিক্ষক-কর্মচারীদের কল্যাণ ট্রাষ্ট ও অবসর সুবিধার পরিবর্তে পূর্ণাঙ্গ পেনশন সুবিধা চালু, অধ্যক্ষ-উপাক্ষ্যক্ষ, প্রধান শিক্ষক-সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগের নতুন নীতিমালা বাতিল করে পুরাতন নীতিমালা বহাল রাখার আহবান জানান। এছাড়াও নিয়োগপ্রাপ্ত অনার্স-মাস্টার্স পর্যায়ের শিক্ষক এবং নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিওভুক্তকরণ, শিক্ষক-কর্মচারীদের সম্মানজনক বাড়িভাড়া, পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা ও চিকিৎসা ভাতা প্রদানের দাবি করেন বক্তারা।

এতে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির রাজশাহী জেলা শাখার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি শফিকুর রহমান বাদশা। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির রাজশাহী জেলা শাখার সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ রাজকুমার সরকার, বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা, উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল, সহ-সভাপতি আজিজুল আলম, মোস্তাফিজুর রহমান, অধ্যক্ষ আবদুল আজিজ মন্ডল, আশরাফুল ইসলাম, মাহাবুবুর রহমান প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে মোজাহার হোসেন মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ নছিম উদ্দিনকে সভাপতি ও শরিফাবাদ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম টগরকে সাধারণ সম্পাদক করে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির বাঘা উপজেলা শাখার ৫১ সদস্য বিশিষ্ঠ কমিটি গঠন করা হয়।

Leave a comment

উপরে