বাগমারায় সরকারী জমিতে অবৈধ পাকাঘর নির্মাণের অভিযোগ

বাগমারায় সরকারী জমিতে অবৈধ পাকাঘর নির্মাণের অভিযোগ

প্রকাশিত: ২২-০৭-২০১৯, সময়: ১৯:৪০ |
Share This

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার হামিরকুৎসা ইউনিয়নের সীমানা সংলঘ্ন সরকারী খাস খতিয়ানভূক্ত জমিতে অবৈধ পাকাঘর নির্মানের অভিযোগ উঠেছে। সরকারী জমি দখল করে পাকাঘর নির্মানে এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। অবিলম্বে তারা সরকারী সম্পত্তি দখল মুক্ত করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার সচেতন মানুষ।

জানা যায়, আলোকনগর থেকে তাহেরপুর রাস্তার ধারে হামিরকুৎসা ইউনিয়নের শেষ সীমানা সংলঘ্ন প্রায় ১৫ শতক জমি সরকারী খাস খতিয়ানভূক্ত। ২২০৬ নম্বর দাগের সরকারী ওই সম্পত্তির উপর আলোকনগর গ্রামের মৃত মিরা প্রামানিক এর ছেলে আব্দুল মান্নান অবৈধ ভাবে পাকাঘর নির্মাণ করছে। পুরো জমিই মাটিয়াল হিসেবে থাকলেও পাকা রাস্তার ধার সংলঘ্ন গর্তে মাটি ভরাট করে সেখানে পাকাঘর নির্মাণ করছেন বলে এলাকার লোকজন অভিযোগ করেছেন।

এ নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। এলাকার লোকজনের অভিযোগ, আব্দুল মান্নান জোরপূর্বক সরকারী সম্পত্তি দখলের পায়তারা করছে। এছাড়াও তিনি সরকারী জমি দখলের জন্য ইট দিয়ে চারধার ঘিরে ফেলেছে। এলাকার লোকজনের অভিযোগ আব্দুল মান্নান ইউনিয়ন ভুমি অফিসের তফশীলদারের সাথে লাইন করে সরকারী সম্পতিটির শুনকড়ালী হিসাবে সামান্য খাজ দিয়ে মাঠিয়ালটিতে মাছ চাষ করে আসছিল। বর্তমানে তিনি মাঠিয়ালটি ভরাট করে সেখানে পাকাঘর নির্মানের কাজ শুরু করেছে। সরকারী সম্পত্তি দখলের মাধ্যমে পাকাঘর নির্মান করায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা অবিলম্বে সরকারী সম্পদ উদ্ধারে কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে অভিযুক্ত আব্দুল মান্নানের ০১৭৬৭২৮৪৪২১ নম্বর মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোনটি রিসিভ করেন নি।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিউল ইসলাম বলেন, সরকারী সম্পত্তিতে পাকাঘর নির্মানের কোন নিয়ম নেই। যদি কেউ পাকাঘর নির্মানের চেষ্টা করে তাহলে সে গুলো গুড়িয়ে দিয়ে সরকারী সম্পত্তি উদ্ধার করে হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

উপরে