রাজশাহী ওয়াসার ৪ হাজার ১৫০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন

রাজশাহী ওয়াসার ৪ হাজার ১৫০ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন

প্রকাশিত: ১১-১০-২০১৮, সময়: ১৭:২২ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ১৭ প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এসব প্রকল্পে মোট ব্যয় হবে ১৪ হাজার ২০০ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় প্রকল্পগুলোর অনুমোদন দেওয়া হয়।

অনুমোদন হওয়া প্রকাল্পগুলোর মধ্যে বিশুদ্ধ পানির সরবরাহের জন্য চার হাজার ১৫০ কোটি টাকার ‘রাজশাহী ওয়াসা ভূ-উপরিস্থ পানি শোধনাগার প্রকল্প’টিও রয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় পদ্মার পানি বিশুদ্ধ করে পাইপ লাইনে নগরীতে সরবরাহ করা হবে।

একনেক সভা শেষে প্রকল্পগুলো নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। মন্ত্রী বলেন, সভায় ১৭টি (নতুন ও সংশোধিত) প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে মোট ব্যয় হবে ১৪ হাজার ২০০ কোটি ৫৯ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন ১১ হাজার ১৯৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ২ হাজার ৮১১ কোটি ৬২ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ১৯৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন- সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলম, পরিকল্পনা সচিব জিয়াউল ইসলাম প্রমুখ।

এদিকে, ‘রাজশাহী ওয়াসা ভূ-উপরিস্থ পানি শোধনাগার প্রকল্প’ অনুমোদন দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে এক বিবৃতিতে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘আমি মেয়র থাকাকালে ২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রী চীন সফরে গিয়ে চীনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে যে চুক্তিগুলো স্বাক্ষরিত হয়। তার মধ্যে এই প্রকল্পটি ছিল। আজ একনেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চার হাজার ১৫০ কোটি টাকার ‘রাজশাহী ওয়াসা ভূ-উপরিস্থ পানি শোধনাগার প্রকল্প’ অনুমোদন দিয়েছেন। এটি আমাদের জন্য অনেক বড় সুসংবাদ। রাজশাহীর জন্য একটি বৃহত্তম প্রকল্প এটি। প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি। একইসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করছি। আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর এই প্রকল্প অনুমোদনের মাধ্যমে রাজশাহীর জন্য নতুন যাত্রা শুরু হলো।’

উল্লেখ্য, এই প্রকল্পে রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে প্ল্যান্ট স্থাপন করা হবে। সেখান থেকে পদ্মার পানি পরিশোধন করে পাইপ লাইনে রাজশাহীবাসীর জন্য সরবরাহ করা হবে। বাংলাদেশ ও চীন সরকার যৌথভাবে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। চার বছরের এই প্রকল্পের মেয়াদ জুলাই ২০১৮ থেকে জুন ২০২২ সাল পর্যন্ত সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে।

আরও খবর

  • অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মামলা
  • ‘আহতদের চিকিৎসায় কোনো ত্রুটি হবে না’
  • চকবাজার ট্র্যাজেডি : ৪১ লাশের পরিচয় মিলল
  • এক লাখ ইয়াবাসহ ১১ রোহিঙ্গা আটক
  • প্রধানমন্ত্রী সারারাত ঘুমাননি
  • হাসপাতালে ৮১ লাশ, সনাক্তের অবস্থায় ৩৫
  • লাশ হস্তান্তর শুরু
  • অগ্নিদুর্ঘটনায় এখনো নিখোঁজ ১৫
  • অগ্নিকান্ডে লাশের সারিতে দুই চিকিৎসক
  • নিহতদের ১ লাখ, দগ্ধদের ৫০ হাজার টাকা দেবে শ্রম মন্ত্রণালয়
  • স্বজনরা লাশ পাবেন কিভাবে?
  • অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানির ঘটনায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক
  • চকবাজারে ভয়াবহ আগুন, নিহত ৭০
  • মনোনয়ন প্রত্যাশীর ‘লন্ডনে টাকা ঢালার’ ঘটনা বললেন প্রধানমন্ত্রী
  • ‘রাজশাহীর উন্নয়নে পাশে থাকবে নরওয়ে’


  • উপরে