রাজশাহী নগর আ.লীগের সম্মেলন ৭ মার্চের আগেই

রাজশাহী নগর আ.লীগের সম্মেলন ৭ মার্চের আগেই

প্রকাশিত: ১২-০১-২০২০, সময়: ২২:৫২ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের আগে শুরু হওয়া জেলা সম্মেলনের অসমাপ্ত কাজ আগামী ৭ মার্চের আগে শেষ করার কথা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। রোববার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে সম্পাদকমণ্ডলীরে এক বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি।

সে অনুযায়ী মেয়াদোত্তীর্ণ রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন করতে হবে ৭ মার্চের আগেই। নগর আওয়ামী লীগের কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে প্রায় দুই বছর আগে।

সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের বলেন, যেসব জেলায় কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ আছে সেগুলো দ্রুত শেষ করতে হবে। আমাদের নতুন দায়িত্বপ্রাপ্তদের কাজ বণ্টন করে দেয়া হয়েছে। মুজিববর্ষ শুরু হওয়ার আগেই অর্থাৎ ১৭ মার্চের আগে এবং ঐতিহাসিক ৭ মার্চ আছে, এর আগে যতটা সম্ভব অসমাপ্ত কাজ শেষ করতে নেত্রীর নির্দেশনা পেয়েছি। নির্দেশনা মোতাবেক সম্পাদকমণ্ডলীকে অবহিত করেছি। যতদ্রুত সম্ভব তাদের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করবেন।

রাজশাহী নগর আওয়ামী লীগের সূত্রমতে, ২০১৪ সালের ২৫ অক্টোবর সম্মেলন হয় রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের। দলের সভাপতি শেখ হাসিনা নগরের পুর্নাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করেন ২০১৫ সালের ২৬ নভেম্বর। তবে অনুমোদিত পুর্নাঙ্গ কমিটি মহানগর নেতৃবৃন্দের কাছে পাঠানো হয় ৭ ডিসেম্বর। এর আগে সম্মেলন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি হন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। আর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন ডাবলু সরকার।

একাধিক সূত্রমতে, রাজশাহীর বসচেয়ে গুরুত্বপূর্ন এ ইউনিটের সভাপতি পদে সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের বিকল্প নেই। ফলে এবারো তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি নির্বাচিত হবেন। এ পদে আর কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে ইচ্ছুক কি না এমন কারও নাম এখনো শোনা যায়নি।

তবে সাধারণ সম্পাদক পদে হাফ ডজন খানেক নেতার নাম ইতোমধ্যেই আলোচনায় এসেছে। বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার ছাড়াও এবার এ পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন নগর কমিটির সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য নাঈমুল হুদা রানা, মোস্তাক আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক-২ আসলাম সরকার, সদস্য ও প্যানেল মেয়র-১ সরিফুল ইসলাম বাবু, রাবির ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আহসানুল হক পিন্টু, আওয়ামী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান এবং নগর যুবলীগের সভাপতি রমজান আলীর নাম শোনা যাচ্ছে।

Leave a comment

উপরে