জাতীয় পার্টি উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী : সালমা

জাতীয় পার্টি উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী : সালমা

প্রকাশিত: 30-11-2019, সময়: 17:07 |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা শাখার সভাপতি এবং সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি বলেছেন, জাতীয় পার্টি ধ্বংসের রাজনীতি করে না, উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী। তিনি বলেন, পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ আমাদের সেই শিক্ষাই দিয়েছেন। আমরা ধ্বংসের রাজনীতি বিশ্বাস করি না বলেই মানুষ আমাদের ভালোবাসে।

শনিবার এশিয়ার সর্ববৃহৎ শপিংমল রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্ক কনভেনশন সেন্টারের ‘মহল’ হলে জাতীয় পার্টির ঢাকা জেলা সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জিএম কাদের এমপি। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন দলের মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি। সভাপতিত্ব করেছেন অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি।

এছাড়া পার্টির কেন্দ্রীয় নেতারা অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করছেন জাতীয় পার্টির জেলা শাখার সদস্য সচিব ও সাবেক এমপি খান মোহাম্মদ ইসরাফিল (খোকন)।

কর্মীদের আরও সক্রিয় হওয়ায় আহ্বান জানিয়ে সালমা ইসলাম বলেন, আপনারা আরও সক্রিয় হোন। দলকে সুসংহত করতে মিলেমিশে কাজ করুন।

আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। আগামী নির্বাচনের জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি চালিয়ে যান। নিশ্চয় আমরা জয়ী হবো।

সোনালি সকাল আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি সমস্ত বিশ্বাস এবং আস্থার সঙ্গে বলতে চাই, আমাদের ভবিষ্যত খুবই উজ্জ্বল। আমরা পারব, নিশ্চয় পারব, আর সেটা সম্ভব করবেন আপনারা।

তিনি বলেন, দেশের মানুষ জাতীয় পার্টির দিকে আশা নিয়ে তাকিয়ে আছেন। জাতীয় পার্টি আরও শক্তিশালী হবে। আমাদের প্রিয় নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আদর্শ ও উন্নয়নের রাজনীতি বুকে ধারন করে দলে প্রচার ও প্রসারে আত্মনিয়োগ করবেন। জাতীয় পার্টি আরও শক্তিশালী হয়ে আগামীতে দেশের শাসন ক্ষমতায় গিয়ে সুদিন ফিরিয়ে আনবে।

সাভারে জাতীয় পার্টির ঘাঁটি গড়ে তুলব উল্লেখ করে তিনি বলেন, সাভারে কাজ করতে গিয়ে আমরা কিছু সমস্যায় পড়েছি। তবে দুই থেকে চার মাসের মধ্যে সাভারে জাতীয় পার্টির একটি ঘাঁটি গড়ে তুলব বলে আমি বিশ্বাস করি।

তিনি বলেন, প্রত্যেকে যদি আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করি; তবে টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া পর্যন্ত জাতীয় পার্টিকে আমরা সুসংহত করতে পারব।

নিজ এলাকা নবাবগঞ্জ ও দোহারের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি ৯ বছরের শাসন আমলের পরবর্তী সময়ে এই এলাকায় দলের অস্তিত্ব প্রায় বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছিল। ওয়ার্ড, কমিটি ও ইউনিয়নগুলো সংগঠিত করে সেখান দলকে আমরা চাঙ্গা করতে সক্ষম হই।

Leave a comment

উপরে