‘নির্বাচন পরিপন্থি আচরণবিধি তৈরি হচ্ছে’

‘নির্বাচন পরিপন্থি আচরণবিধি তৈরি হচ্ছে’

প্রকাশিত: ২১-১০-২০১৮, সময়: ১৪:২৭ |
Share This

ফাইল ফটো

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা যে আচরণবিধি তৈরি করছেন, তা সুষ্ঠু নির্বাচনের ‘পরিপন্থি আচরণবিধি’ বলে অভিহিত করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘এই কমিশনের কয়েকজন আধিকারিক কমিশনের ক্ষমতা কমিয়ে সরকারকে দিতে চান। সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন করার নজীর পৃথিবীর কোথাও নেই। অথচ প্রধান নির্বাচন কমিশনার নির্বাচনের সময় সংসদ সদস্যদের ক্ষমতা বৃদ্ধির সুযোগ সৃষ্টির করতে আইন করতে চাচ্ছেন।’

রোববার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘আসন্ন নির্বাচন নিয়ে চারদিকে নৈরাশের ছবি। সরকার পূণরায় একতরফা নির্বাচন করার জন্য এখন এজিদের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। ভোটাররা বাড়ি ছাড়া, ঘর ছাড়া, গ্রাম ছাড়া, জেলা ছাড়া। এজিদের মতো ফোরাত নদীর তীর অবরোধ করার ন্যায় এরা মানুষের ভোটাধিকারকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে সরকারের সন্ত্রাসী পরিকল্পনার পরিপ্রেক্ষিতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও বাংলাদেশের নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে বিরূপ মনোভাবের সৃষ্টি হচ্ছে। ইইউ ইসিকে পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছে তারা আগামী সংসদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষক পাঠাবেনা। অন্যান্য দাতা ও সাহায্য সংস্থা, বিদেশি মিশন থেকেও নির্বাচনে পর্যবেক্ষক পাঠাবে কি না-তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় রয়েছে। কারণ বাংলাদেশে বর্তমানে নির্বাচনের কোনো পরিবেশ নেই।’

নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার নির্বাচনের আগে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে কেন ছুটি নিয়েছেন- প্রশ্ন তুলে বিএনপির এই নেতা বলেন, তাকে ছুটি নিতে বাধ্য করা হয়েছে কি না-তাও রহস্যজনক। ইসিকে সর্বোচ্চ চাপে রেখে কাজ করাচ্ছে সরকার।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) খালেদা জিয়ার ‘যথাযথ চিকিৎসা’ হচ্ছে না দাবি করে রিজভী বলেন, ‘বিএসএমএমইউতে শুধুমাত্র যে ফিজিও থেরাপী দেওয়া হয় সেটিও পর্যাপ্ত নয়। তার ব্যক্তিগত বিশেজ্ঞ ডাক্তারদেরকেও অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি স্বাস্থ্য পরিক্ষার জন্য, অথচ এ বিষয়ে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা ছিল। আধুনিক যন্ত্রপাতির সমন্বয়ে সজ্জিত বিশেষায়িত হাসপাতালের চিকিৎসার সুযোগ থেকে বেগম জিয়াকে বঞ্চিত করা হয়েছে। তথাকথিত উন্নয়নের ধ্বজাধারি প্রধানমন্ত্রী দেশের একজন অগ্রগণ্য জাতীয় নেতাকে অনুন্নত চিকিৎসার সরঞ্জামাদি আওতায় স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে বাধ্য করছে।’

খালেদা জিয়ার চিকিৎসকদের প্যানেলে তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের অন্তর্ভুক্তি এবং দ্রুত তাকে বিশেষায়িত হাসপাতালে নেওয়ার দাবি করেন রিজভী।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার রায় নির্ধারণ করাকে ‘বেআইনি’ অভিহিত করে তিনি বলেন, ‘সরকার প্রধানের নির্দেশেই সম্পূর্ণ প্রতিহিংসামূলকভাবে এ রায়ের দিন ধার্য করা হয়েছে। সেজন্যই রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা আদালতের ওপর চাপ সৃষ্টি করে রায়ের দিন ধার্য করে নিয়েছে। আরেকটি ফরমায়েশি রায় হতে যাচ্ছে কি না-তা দেখার জন্য দেশবাসী প্রহর গুনছে।’

রুহুল কবির রিজভী জানান, ১ সেপ্টেম্বর থেকে ১৯ অক্টোবর পর্যন্ত সারাদেশে বিএনপি নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মোট গায়েবি মামলা হয়েছে ৪ হাজার ২১৩টি এবং এজাহারে জ্ঞাত আসামি করা হয়েছে ৯৫ হাজার ৬৩২ জন। এজাহারে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে ২ লক্ষ ৮৮ হাজার ১৪৬ জন। সর্বমোট জ্ঞাত ও অজ্ঞাত এজাহার নামীয় আসামি ৩ লক্ষ ৮২ হাজার ৭২৮ জন। এ পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৫ হাজার ৬০ জন।

আরও খবর

  • গোদাগাড়ীতে ১৫০০ ফেনসিডিলসহ দুই যুবক আটক
  • মহাসচিব হওয়ার ইচ্ছা জানালেন রিজভী
  • রাণীনগরে এক বছরেও শেষ হয়নি পল্লী বিদ্যুতের সাব-ষ্টেশন নির্মাণ কাজ
  • পাঁচবিবিতে পুলিশের গুলিতে ডাকাত সর্দার আহত, অস্ত্র উদ্ধার
  • ২৫০ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছে সৌদি আরব
  • আরও ৫০ হাজার পুলিশ নিয়োগের নির্দেশ
  • শাহজাদপুরে সংঘর্ষে পিতা-পুত্রসহ আহত ১০
  • ‘আ.লীগ ক্ষমতায় থাকলে ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়’
  • নতুন সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠকে ৬ এজেন্ডা
  • মান্দায় ইউপি সদস্যের ঘরে স্ত্রীর লাশ, সতীন আটক
  • সব কোচিং সেন্টার এক মাস বন্ধ
  • নাটোরে শিক্ষিকার মাদক ব্যবসায়ে ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী
  • ভোট সুষ্ঠু না হলে ফখরুল সাহেব পাশ করলেন কীভাবে : কাদের
  • চার সন্তানের মাকে বিয়ে করায় যুবককে পেটালেন ইউপি সদস্য
  • রাজশাহীতে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ১


  • উপরে