দুর্গোৎসবে ভোটের রাজনীতি

দুর্গোৎসবে ভোটের রাজনীতি

প্রকাশিত: ১৭-১০-২০১৮, সময়: ২৩:৪৫ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে ভোটের রাজনীতি এখন জমে উঠেছে শারদীয় দুর্গোৎসব ঘিরে। আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে চলমান শারদীয় দুর্গোৎসবই সবচেয়ে বড় উৎসব আয়োজন। তাই এ উৎসবে সামিল হয়ে নিজেদের পক্ষে আওয়াজ তোলার মোক্ষম সুযোগ হাতছাড়া করতে চান না কেউ। সবাই এখন তাই দুর্গোৎসবমুখি। প্রতিদিন দলবল নিয়ে যাচ্ছেন এ মন্ডপ থেকে সে মন্ডপে। খোঁজ-খবর নিচ্ছেন হিন্দু ধর্মাবল্মবীদের। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। অনেক নেতা শো-ডাউনের মাধ্যমেও নিজেদের উপস্থিতি জানান দিচ্ছেন। ব্যানার ফেস্টুনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তারা।

রাজশাহী জেলার সংসদীয় ৬ টি আসনের বর্তমান এমপিরা ছাড়াও সম্ভাব্য প্রার্থীরা মনোনয়ন যুদ্ধে সক্রিয়। রাজশাহীর এসব আসনে এখনো বিএনপি ও অন্য দলের নেতাদের তেমন আনাগোনা শুরু না হলেও শুরু থেকেই মাঠে সক্রিয় রয়েছে আওয়ামী লীগ। প্রতিটি আসনেই বর্তমান এমপি ছাড়াও একই দলের একাধিক নেতা মনোনয়নের আশায় মাঠে নেমেছেন। এখন পুজামুখি যেন সবাই। নিজ নিজ এলাকার পূজামন্ডপে ধর্না দিচ্ছেন নেতারা। কর্মী সমর্থক নিয়ে নেতাদের ভারে কখনো কখনো ভরপুর হয়ে উঠছে রাজশাহীর পূজা মন্ডপ। এক নেতা আসছেন তো আরেক নেতা যাচ্ছেন-এভাবেই চলছে মন্ডপ কেন্দ্রিক সম্ভাব্য প্রার্থীদের পদচারনা, ভোটের রাজনীতি।

রাজশাহীর তানোর ও গোদাগাড়ী নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসন রাজশাহী-১। এ আসনে বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের ওমর ফারুক চৌধূরী। তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিও। গতটার্মে সরকারের প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। একাদশ নির্বাচনেও তিনি দলের প্রার্থী হওয়ার জন্য মনোনয়ন চাইবেন। শুরু থেকেই মাঠে সক্রিয় রয়েছেন তিনি। এবারো তার মনোনয়ন প্রায় নিশ্চিত-এমনটা ভেবে মাঠে রয়েছেন সক্রিয়। বর্তমান এমপি হওয়ার সুবাদে এলাকার মানুষের সঙ্গে মেশার সুযোগটা তার বেশী। এলাকায় উন্নয়ন কর্মকান্ডের অংশ হিসেবে প্রতিদিন থাকছেন নিজ এলাকায়। শারদীয় উৎসব শুরুর পর প্রতিদিনই ছুটছেন বিভিন্ন পুজামন্ডপে। এ আসনে বিএনপি শক্তিশালী প্রার্থী হিসেবে এবার মনোনয়ন পেতে পারেন সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হক। গত কোরবানীর ঈদেও তিনি মাঠে সক্রিয় ছিলেন। তবে ইদানিং মাঠে দেখা মিলছে না তার। তবে এ আসনে আওয়ামী লীগের অপর নেতা তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মুন্ডুমালা পৌরসভার মেয়র গোলাম রাব্বানী দলের মনোনয়ন প্রত্যাশী। এখানে একই দলের আরো বেশ কয়েকজন নেতা থাকলেও মাঠে রয়েছেন মাত্র দুজন। এরা হলেন বর্তমান এমপি ওমর ফারুক চৌধুরী ও পৌর মেয়র গোলাম রাব্বানী। এখন দুজনই নেতাকর্মীদের নিয়ে পৃথকভাবে পুজা মন্ডপে যাচ্ছেন প্রতিদিন।

রাজশাহী নগর নিয়ে সদর আসন। এখানে বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের নেতৃত্বধিন ১৪ দলের অন্যতম শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা ফজলে হোসেন বাদশা। জোটবদ্ধ নির্বাচন হলে এবারো এ আসনটি তার জন্য নির্ধারিত। নিশ্চিত মনোনয়ন যেনে তিনিও মাঠে রয়েছে সক্রিয়। শারদীয় উৎসবে তিনিও শামিল হয়েছেন। বাদশা বলেন, আমরা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বিশ^াসী। সব উৎসবেই তার অংশগ্রণ থাকে। এবারো তিনি বিভিন্ন মন্ডপে যাচ্ছেন। মানুষের সঙ্গে কথা বলছেন। রাজশাহী সদর আসনে আওয়ামী লীগের তরুন নেতা মহানগর সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার মনোনয়নের আশায় মাঠে রয়েছেন। এ আসনে বিএনপির প্রার্থী তালিকায় সাবেক এমপি মিজানুর রহমান মিনু ও রাসিকের সাবেক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের নাম শোনা গেলেও ভোটের মাঠে নিস্কিৃয় রয়েছেন তারা। নিজেদের দলীয় ঘরোয়া অনুষ্ঠান ছাড়া মাঠে কোন তৎপরতা নেই তাদের।

পবা ও মোহনপুর উপজেলার তিনটি পৌরসভা এবং ১৪টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত রাজশাহী-৩ আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির এক ডজন নেতা মনোনয়ন-প্রত্যাশী। তাদের মধ্যে ক্ষমতাসীন দলে দুজন ও বিএনপিতে একজন এগিয়ে রয়েছেন। এখানে বর্তমান এমপি আয়েন উদ্দিন সক্রিয় রয়েছেন। তবে এ আসনে এবার মনোনয়ন চান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ। তিনি মাঠে রয়েছেন। ভোটের মাঠে ছুটছেন প্রতিদিন। পূজামন্ডপেও দিচ্ছেন ঠু। এ আসনে বিএনপির প্রার্থী নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলনের নাম শোনা গেলেও মাঠে পিছিয়ে রয়েছেন তিনি। রাজশাহীর সবকটি আসনে আওয়ামী লীগের এবাধিক প্রার্থী মাঠে সক্রিয় থাকলেও দেখা মিলছে না বিএনপি ও অন্য কোনো দলের নেতাদের।

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলা নিয়ে গঠিত রাজশাহী-৪ আসনেও আওয়ামী লীগের তিনপ্রার্থী এবার মনোনয়ন যুদ্ধে। এ আসনে এবারো মনোনয়ন নিশ্চিত বর্তমান এমপি এনামুল হকের। তবে এ আসনে এবার মনোনয়ন চান আরো দুজন নেতা। এরা হলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান জকিরুল ইসলাম সান্টু ও উপজেলার তাহেরপুর পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ। তারা পৃথকভাবে নানা কর্মসূচি ও দলীয় আয়োজন পালন করছেন। এবার উপজেলার ঐতিহ্যবাহি রাজা কংস নারায়নের মন্দিরে স্থায়ী বোঞ্জ প্রতীমা সংযুক্ত করে আলোচনায় এসেছে এমপি এনামুল হক। অনেকে বলছেন, এলাকার উন্নয়নের জন্য এবারো এনামুল যোগ্য প্রার্থী। তিনি এখন ভোটের মাঠে সক্রিয়। ভোটের মাঠে, পুজার মন্ডপে ঘুরছেন ফুরফুরে মেজাজে।

রাজশাহীর পুঠিয়া দুর্গাপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত রাজশাহী-৫ আসন। এখানে এক সময় প্রভাবশালী এমপি ছিলেন বিএনপির নাদিম মোস্তফা। ২০০৮ সালের পর থেকে তিনি এলাকা থেকে প্রায় বিতাড়িত। এবারেও তিনি দলের মনোনয়ন পেতে পারেন। তবে মাঠে দেখা নেই তার। এ আসনের বর্তমান এমপি আওয়ামী লীগের কাজী আবদুল ওয়াদুদ দারা সক্রিয় রয়েছেন মাঠে। তৃণমুলে মিশতে নানা উন্নয়ন কর্মকান্ড করে যাচ্ছেন। তবে এ আসনে একই দলের (আওয়ামী লীগ) আরো বেশ কয়েকজন নেতাও সক্রিয় রয়েছেন। মনোনয়নের আশায় মাঠে সক্রিয় থেকে এখন চোষে বেড়াচ্ছেন ভোটের মাঠ, ভোটারের বাড়ি আর বর্তমানে পুজামন্ডপ। এদের কাতারে রয়েছেন জেলা যুবলীগের সহসভাপতি ওবায়দুর রহমান, তরুন ব্যাবসায়ী আসিফ ইবনে তিতাস ও আওয়ামী লীগ নেতা আহসানুল হক মাসুদ।

গত ১০ বছরে উন্নয়নে এগিয়ে থাকা রাজশাহীর বাঘা ও চারঘাট নিয়ে গঠিত রাজশাহী-৬ আসনে এবারো বর্তমান এমপি ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমে নির্ভার দুই উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। রাষ্ট্রীয়কাজে ব্যস্ত থাকায় এ দুই উপজেলায় তার হয়ে কাজ করছেন নেতাকর্মীরা। এখন তারাই পুজামন্ডপেও বার্তা পৌছে দিচ্ছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর। এ আসনে এবারেও শাহরিয়ার আলম মনোনয়ন পাচ্ছেন এটা অনেকটায় নিশ্চিত জেনে তার পক্ষে মাঠের কাজ করছেন নেতাকর্মীরা। সর্বশেষ গত সপ্তাহে শাহরিয়ার আলম এলাকায় এসে কয়েকদিন সম্পৃক্ত হন মানুষের সঙ্গে।

Leave a comment

আরও খবর

  • ৩০০ আসনে নৌকার মাঝি হতে চান সাড়ে ৩ হাজার
  • নির্বাচন অংশ নিচ্ছেন না ড. কামাল
  • ভোট পিছিয়ে ৩০ ডিসেম্বর
  • তফসিলের পর প্রথম বৈঠকে মন্ত্রিসভা
  • বিএনপির মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু, খালেদার জন্য ৩টি
  • স্বতন্ত্র লড়বে জামায়াত, টার্গেট ৩০ আসন
  • গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর হামলা, নিহত ৭
  • রাজশাহীর ২টি আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী দেবে জামায়াত
  • ‘আ.লীগ জোটে আসছে যুক্তফ্রন্ট’
  • নির্বাচন পেছানোর সিদ্ধান্ত সোমবার
  • সোমবার থেকে মনোনয়ন ফরম ছাড়বে বিএনপি
  • নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা ঐক্যফ্রন্টের
  • রাজশাহী বিভাগে আ.লীগ-বিএনপির প্রার্থী হতে পারেন যারা
  • জাতীয় পার্টির মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু
  • ৩০০ আসনে বিএনপির প্রার্থী হচ্ছেন যারা (তালিকাসহ)


  • উপরে