আবারো করতে চাই এ বাংলা মুক্ত

প্রকাশিত: ২৬-০৩-২০১৯, সময়: ১৫:২২ |
Share This

আমাদের এই দেশ সুজলা সুফলা শষ্য শ্যামলা,
ধনে ধন্যে পুষ্পে ভরা কলকারখানা,
ও শিক্ষা নগরীতে গড়া আমাদের এই বাংলাদেশ।
ভাষা আন্দোলন দেখিনি আমি,
দেখিনি আমি ৭১ এর স্বাধীনতা যুদ্ধ।
দেখিনি আমি বঙ্গবন্ধু কে,
দেখিনি আমি ১৯৭৫ এর ১৫ই আগষ্ট এর বঙ্গবন্ধুসহ স্বপরিবারের নির্মম হত্যাযোগ্য,
৩রা নভেম্বরে জাতীয় চার নেতার ইতিহাস কলঙ্কীতকরা জেলহত্যা।
শুনেছি আমি আমার মা এর মুখে,
ঘটেছে কত অঘটন, পেয়েছে কত লাঞ্ছনা।
সালাম, বরকত, রফিকসহ,
আরও অনেকের রক্তের বিনিময়ে
অর্জিত হলো এই বাংলা ভাষা।
শুনেছি আমি আরও, আমার মা এর মুখে,
ভাষা আন্দোলনে মেইন ভুমিকাই ছিলো
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
শুনেছি আমি আমার মা এর মুখে,
সমগ্র বাংলা একত্রিত হওয়া ঐতিহাসিক সেই ৭ই মার্চের ভাষণ।
শুনেছি আমি আমার মা এর মুখে,
বঙ্গবন্ধুর ডাকে একত্রিত হওয়া
সেই রক্তক্ষয়ী ৭১এর স্বাধীনতা যুদ্ধ।
শুনেছি আমি আমার মা এর মুখে,
সেই পাক বাহেনীর হাতে লাঞ্ছিত, ধর্ষিত
নির্যাতিত মা বোনদের ক্ষতবিক্ষত ও মুক্তিযোদ্ধাদের লাশ,
আর তার বিনিমিয়ে পাওয়া এই স্বাধীনতা।
এতো কষ্টের বিনিময়ে পাওয়া এই স্বাধীনতা
হতে দিবোনা এতো সহজে নষ্ট।
শুনতে পাচ্ছি আবার দেখতে ও পাচ্ছি
স্বাধীনতা বিপক্ষের শত্রুরা আবার
মুক্তিযুদ্ধনামা খতিয়ান হাতে হয়েছে তারা পাকি মুক্তিযোদ্ধা।
তাদের নিয়ে করছে বাড়াবাড়ি
কিছু নেতা কিছু হোতা।
তারা কি গেছে ভুলে,
তাদের সেই ভয়াবহ নরপিশাচশি নিষ্ঠুরতা।
হতে দিবনা এতো সহজে নষ্ট,
শত জীবনের বিনিময়ে অর্জিত এই স্বাধীনতা,
শত মা-বোনের ইজ্জতহানি
ও আর্তনাদের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীনতা।
আজ জেগেছে জনতা,
তাদের মুখোশ উন্মোচিত করতে।
যদি ঝরাতে হয় রক্ত, যদি দিতে হয় প্রাণ,
হবোনা পিছুটান, ইতিহাসের পাতাই লিখাবো নাম।
আবারো বিতাড়িত করবো এই বাংলা থেকে,
পাক দালাল আর পাকিমুক্তি যোদ্ধা।
তবেই আজীবন রবে সুখ
ও শান্তি এই বাংলাতে।
ওলিতে গোলিতে আজীবন ধ্বনিত হবে,
জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধুর শ্লোগান…,
তবেই শান্তি পাবে সকল শহীদ।
আজীবন তাদের স্মরনে,
সম্মানের সহিত মুক্তিযুদ্ধের গান…,
এই স্বাধীন বাংলার অপর নাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
তোমায় জানাই রক্তিম সালাম।

লেখক : মোকশেদ উল আলম সুমন,

রাণীবাজার মিঞাপাড়া, রাজশাহী।

উপরে