রাজশাহীসহ উত্তরের ১০ জেলায় বসছে দেড় লাখ স্মার্ট মিটার

রাজশাহীসহ উত্তরের ১০ জেলায় বসছে দেড় লাখ স্মার্ট মিটার

প্রকাশিত: ১৬-০১-২০২০, সময়: ১৩:০৭ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : উত্তরবঙ্গের বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থা নর্দার্ন ইলেক্ট্রিসিটি কোম্পানি বা নেসকোর অধীন এলাকায় এক লাখ ৪০ হাজার ২৮৭টি স্মার্ট প্রি-পেইড মিটার স্থাপনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। চলতি বছরের অক্টোবরের মধ্যেই রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর, পাবনা, বগুড়া, দিনাজপুর, পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, রংপুর ও নীলফামারীর শহরাঞ্চলে স্থাপন করা হবে এসব মিটার।

প্রকল্প বাস্তবায়নে বুধবার চীনের শেনজেন স্টার ইনস্ট্রুমেন্ট ও বাংলাদেশের অকুলিন টেকবিডির যৌথ উদ্যোগের (জয়েন্ট ভেঞ্চার) চুক্তি করেছে নেসকো। চুক্তির আওতায় এক লাখ ৩১ হাজার ৩৫৩টি সিঙ্গেল ফেজ মিটার, ৮ হাজার ৯৫টি থ্রি ফেজ মিটার ও ৮৩৯টি ডিসিইউ মিটার স্থাপন করবে চীনা প্রতিষ্ঠান, তাতে ডিজিটাল পেমেন্ট সেবা দেবে অকুলিন।

প্রকল্প বাস্তবায়নের খরচ ধরা হয়েছে ৪১৪ কোটি ৮২ লাখ ৬২ হাজার টাকা, যার মধ্যে সরকার দেবে ৪০০ কোটি ৬৯ লাখ টাকা; বাকি টাকার যোগান নেসকোর তহবিল থেকে। প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বিদ্যুৎ সচিব সুলতান আহমেদ, পিডিবির চেয়ারম্যান সাঈদ আহমেদ ও নেসকো এমডি জাকিউল ইসলাম অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

স্মার্ট মিটার বিপণন সংস্থা ও গ্রাহক দুপক্ষের জন্যই ‘উইন-উইন’ পরিস্থিতির সৃষ্টি করবে বলে আশা করেন প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা। নতুন এই সেবা পেতে গ্রাহককে যেন নতুন করে কোনো ভোগান্তিতে পড়তে না হয় সেবিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সতর্ক করে তিনি বলেন, “কারণ গ্রাহকের সন্তুষ্টি লাভ করাই এসব প্রচেষ্টার মূল উদ্দেশ্য।”

নেসকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) জাকিউল ইসলাম বলেন, নেসকোর বিতরণ এলাকায় বর্তমানে চলতে থাকা ১৩ শতাংশ সিস্টেম লস স্মার্ট মিটার চালুর ফলে শূন্যের কোটায় চলে। ২০১৬ সালে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের অঞ্চলগুলো নিয়ে নতুন কোম্পানি নেসকো গঠিত হয়। ১৬টি জেলা শহর ও ২৪টি উপজেলা শহরের প্রায় ১৫ লাখ গ্রাহক রয়েছে নেসকোর।

Leave a comment

উপরে