প্রেমে জড়ানোর আগে সতর্ক থাকুন তিনটি বিষয়ে

প্রেমে জড়ানোর আগে সতর্ক থাকুন তিনটি বিষয়ে

প্রকাশিত: ১৩-০১-২০২০, সময়: ১৭:৫৩ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ভালোবাসা এমন একটা অনুভূতি যা হুট করেই অনুভব করতে পারেন যে কেউ, যে কোনো সময়। নিজের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা একজন মানুষকে নিজের অংশ করে নেয়া, সারাক্ষণ তার ভাবনায় ডুবে থাকা সত্যি অন্যরকম এক ভালোলাগা। প্রেম বা ভালোবাসা এই ভালোলাগারই নাম। প্রেমের এমন মিষ্টি সম্পর্কে জড়াতে চান না এমন কাউকে খুজে পাওয়া কঠিন। তবে এই সম্পর্কে জড়ানোর আগে তিনটি বিষয় মেনে চললে দুঃখ পাওয়ার ভয়টা কম থাকে। আর মন উজার করে ভালোবাসাও যায়। চলুন জেনে নেয়া যাক বিষয়গুলো-

নিজেকে গুরুত্ব দিন
নিজস্ব ভাবনার প্রভাবই পড়ে আমাদের জীবনে। তাই নিজেকে নিয়ে আপনি যদি ইতিবাচক ভাবনা ভাবেন, জীবন সেভাবেই আগাবে। নিজের কাছে নিজে মূল্যবান না হলে অন্যরা মূল্য দেবে না এটাই স্বাভাবিক। তাই নিজেকে গুরুত্ব দিতে শিখুন। আপনি সিঙ্গেল, তার মানে এই নয় যে আপনি ভালোবাসা পাওয়ার যোগ্য নন! বরং আপনার যোগ্য কারো দেখা এখনো পাননি, এটাই ভাবুন। পছন্দের মানুষটিকে খুঁজে নিন।

আবার অনেক সময় একবার প্রেমে ধোকা খেয়ে মন ভেঙে যায় অনেকের। সেখান থেকে নষ্ট হয় আত্মবিশ্বাস। কিন্তু আপনি যদি ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্তগুলো নেন, তাহলে আর নতুন করে দুঃখ পেতে হবে না। ভালোবাসার মানুষটির দেখা পেলে মুখ ঘুরিয়ে থাকবেন না। বরং সব ভয় দূরে ঠেলে হাতে হাত রেখে এগিয়ে যান।

নিজেকে বদলে ফেলবেন না
ভালোবাসা পাওয়ার জন্য অনেকে নিজেকে আপাদমস্তক বদলে ফেলেন। এটি একদমই ভুল। কারণ কোনো মানুষই পুরোপুরি আরেকজনের মনের মতো হতে পারে না। বরং আপনার ভালো-মন্দ মেনে নিয়ে যে আপনাকে ভালোবাসবে, তার হাতটি ধরুন। ভালোবাসার দোহাই দিয়ে কেউ আপনাকে বদলে ফেলতে চাইলে মোটেই তার কথায় কান দেবেন না, মনও দেবেন না তাকে। ভালোবাসা মানে কিন্তু নিজের আকাঙ্ক্ষাগুলোই শুধু পূরণ করা নয়, বরং নিঃস্বার্থভাবে মনের মানুষটির পাশে থাকাই প্রেম। এই মন্ত্র মনে গেঁথে নিলে জীবনে কখনোই ঠকবেন না।

সতর্ক থাকুন
প্রেমের অভিনয় জানা মানুষের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়! আমাদের চারপাশে এমন অনেক মানুষ আছেন যারা নিজের স্বার্থের জন্য অন্যের মন নিয়ে খেলতেও দ্বিধা করেন না! আপনি যদি একা থেকে থেকে বিরক্তও হয়ে যান, তবু হুট করে প্রেমে জড়াবেন না। বরং যাচাই করে নেয়াই জ্ঞানীর মতো কাজ হবে। প্রথম দিকের কয়েকটা মাস শুধু বন্ধুর মতোই মিশুন তার সঙ্গে। এসময় তার মনোভাব বোঝার চেষ্টা করুন। তার পছন্দের বাইরে কোনো কাজ করে দেখুন তিনি কীভাবে নেন। তার প্রতিক্রিয়ার ধরন দেখেই বুঝতে পারবেন, তিনি কতটা সরল বা গরল। এরপর পরিস্থিতি বুঝেই সিদ্ধান্ত নিন। মনে রাখবেন, ভুল মানুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর চেয়ে একা থাকা বেশ ভালো।

Leave a comment

উপরে