আয়ু বাড়াতে চাইলে মন খুলে ঝগড়া করুন জীবন সঙ্গীর সাথে : গবেষণা

আয়ু বাড়াতে চাইলে মন খুলে ঝগড়া করুন জীবন সঙ্গীর সাথে : গবেষণা

প্রকাশিত: ০২-০৬-২০১৯, সময়: ১৫:১১ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : স্ত্রী’র সঙ্গে মন খুলে ঝগড়া করুন! কারণটা জানলে অবাক হবেন- আদর্শ সম্পর্ক বলতে অনেকে বোঝেন ঝগড়াঝাটি ছাড়াই সুখে শান্তিতে দিনের পর দিন কাটিয়ে দেওয়াকে। যারা এরকম ভাবেন তাদের বলে রাখি এরকম সম্পর্ক কিন্তু বেশী দিন টেকে না। অনেক যুগল আছেন যারা ঝগড়া এড়িয়ে চলতে চান। ঝগড়া এড়িয়ে চললেই হবে বিপদ। সম্পর্ক টিকে থাকলেও একে অপরের সঙ্গে কেউ কোনোদিন সুখী হতে পারবে না?

তাই একটা সম্পর্ক টিকে থাকার জন্যে নিয়ম ঝগড়া হওয়াটা খুব দরকার। আসুন দেখে নেওয়া যাক যে পাঁচ কারণে সম্পর্কের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক অত্যন্ত জরুরি। তাই অন্তত একবার হলেও এ কারণেই ঝগড়া করুন।

যদি কোনো ক্ষোভ না থাকে তাহলে ঝগড়া সম্পর্ক স্থায়ী করে
অধিকাংশ প্রেমিক যুগল একে অপরের কাছে ক্ষমা চায় এবং আরো বেশি ঘনিষ্ঠ হয়। যদি ঝগড়া যুক্তিসঙ্গত হয় তবে এতে ঘনিষ্ঠতা আরো বাড়ে।

ঝগড়ার কারণে সম্পর্কের গভীরতা বাড়ে
পারস্পরিক সম্মান বজায় রেখে যুক্তিসঙ্গত তর্ক করলে সম্পর্কের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা আরো বাড়ে।

ঝগড়ায় বিশ্বাস বাড়ে
পারস্পরিক আলোচনার মাধ্যমে নিজেদের চিন্তাধারা একে অপরের কাছে খোলাখুলি বললে বিশ্বাস বাড়ে। অহেতুক তর্ক বিতর্ক থেকে এটা পরস্পরকে দূরে রাখে। অহেতুক তর্ক বিতর্ক বিচ্ছেদের দিকে নিয়ে যায়।

আপনি ভালো অনুভব করেন
ঝগড়ার সময় নিজের মতামত জানালে মন হাল্কা হয়। কিন্তু খেয়াল রাখবেন মতামত জানানোর ক্ষেত্রে রুক্ষ্ণ হওয়া যাবে না। সম্পর্ক অনেকটা রোলার কোস্টারের মতো। এতে উত্থান পতন থাকবেই।

আপনার চরিত্রকে উন্নত করে
বিরোধের কারণে আপনার ধৈর্য, সঙ্গীর প্রতি যত্ন এবং ভালোবাসা বাড়ায়। আরেকজনের ভুলের সঙ্গে মানিয়ে নিতেও সাহায্য করে। কিন্তু খেয়াল রাখবেন এ ঝগড়া নিয়মিত যেন না হয়। মাঝে মাঝে ঝগড়া করা ভালো।

Leave a comment




উপরে