তেলের দাম কমবে জানুয়ারিতে : মুহিত

তেলের দাম কমবে জানুয়ারিতে : মুহিত

প্রকাশিত: ২৮-১২-২০১৬, সময়: ১৩:৪৪ |
Share This

পদ্মা টাইমস ডেস্ক : বছরের প্রথম মাসেই জ্বালানি তেলের দাম কমানোর উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি জানান, নানা ঝামেলার কারণে কথা থাকলেও ডিসেম্বরে এই বৈঠক করা যায়নি। তবে কবে থেকে এই দাম কমবে, সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি।
সকালে সচিবালয়ে সাধারণ বীমার লভ্যাংশ হস্তান্তর অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন। ২০১৫ সালে রাষ্ট্রায়াত্ব বীমা প্রতিষ্ঠানটি দুইশ ৮৩ কোটি ২৬ লাখ টাকা মুনাফা করেছে। এর অংশ হিসেবে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ শাহরিয়ার আহসান অর্থমন্ত্রীর হাতে ৩০ কোটি টাকার চেক তুলে দেন।
এর আগে গত অক্টোবর এবং নভেম্বরে তেলের দাম কমানোর কথা জানিয়েছিলেন দুই মন্ত্রী। কিন্তু সে উদ্যোগ আলোর মুখ দেখেনি।
২৯ সেপ্টেম্বর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু মেঘনা পেট্রলপাম্পে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা উপলক্ষে সাংবাদিকদের বলেছিলেন, অক্টোবরের মধ্যেই আরেক দফা জ্বালানি তেলের দাম কমানো হবে।
গত ১৭ নভেম্বর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ঘোষণা দিয়েছিলেন, খুব শিগগির জ্বালানি তেলের দাম কমবে। সেদিন তিনি বলেন, ‘ডিসেম্বরের ২ তারিখে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলব।’
অর্থমন্ত্রী বলেন, তেলের দাম কমানোর বিষয়ে ডিসেম্বরে প্রধানমন্তীর সঙ্গে বৈঠকের কথা ছিল। কিন্তু সেই বৈঠক করা যায়নি। জানুয়ারিতে বৈঠকটি হবে। তখন তার সঙ্গে আলোচনা করে উদ্যোগ নেয়া হবে। কবে থেকে এবং কী হারে দাম কমবে-সেটি ওই বৈঠকেই চূড়ান্ত হবে বলে জানান অর্থমন্ত্রী।
আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমায় চলতি বছর ২৫ এপ্রিল সর্বশেষ সব ধরনের জ্বালানি তেলের দাম কমায় সরকার। এর মধ্যে অকটেন ও পেট্রল প্রতি লিটারে ১০ টাকা এবং ডিজেল ও কেরোসিন প্রতি লিটারে তিন টাকা করে কমায়। এর ফলে লিটারপ্রতি ডিজেলের দাম ৬৫ টাকা, কেরোসিনের দাম ৬৫ টাকা, অকটেনের দাম ৮৯ টাকা ও পেট্রলের দাম ৮৬ টাকা করে বিক্রি হয়। এরও আগে গত ৩১ মার্চ ফার্নেস তেলের দাম প্রতি লিটার ৬০ টাকা থেকে ৪২ টাকায় নামিয়ে আনা হয়।
তবে এই তেলের দাম কমানোর সুফল পায়নি সাধারণ মানুষ। সরকার ভাড়া কমালেও পরিবহন মালিকরা এক টাকাও ভাড়া কমাননি। আবার গত কয়েক মাসে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম বেড়েছে। এই অবস্থায় তেলের দাম কমানো একটি জটিল বিষয় বলে ঢাকাটাইমসকে বলেছেন জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।
তবে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমার সুফল পেয়েছে সরকার। দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন লোকসানের বৃত্ত থেকে বের হয়ে আসতে পেরেছে। গত দুই বছরে তারা ১০ হাজার কোটি টাকার মতো লাভও করেছে। এতে তাদের পুঞ্জিভূত লোকসান কমে এসেছে অনেকটাই।
অর্থমন্ত্রী বলেন, গত বছর বছর অর্থনীতি ভালো গেছে। চলতি অর্থ বছর প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ৭.৫ অর্জন করাও কঠিন হবে  না।

উপরে