শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে খুলে গেল শাবি

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে খুলে গেল শাবি

প্রকাশিত: ২২-১২-২০১৬, সময়: ১৩:০৫ |
Share This

পদ্মা টাইমস ডেস্ক : উপাচার্যকে তার কার্যালয়ে ২১ ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে সংস্কৃতিকর্মীদের আন্দোলনের মুখে বন্ধের সিদ্ধান্ত বাতিল করে  সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া হয়েছে।
এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য মো. কবির হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে সোয়া ১১টা পর্যন্ত সিন্ডিকেটের জরুরি সভায় খুলে দেওয়ার এ সিদ্ধান্ত হয়।
সোমবার রাতে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও বোমাবাজির পর শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ১৭ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয় মঙ্গলবার সকালে। এর প্রতিবাদে বুধবার বেলা ২টা থেকে উপাচার্য আমিনুল হক ভুঁইয়াকে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।
সিন্ডিকেট সদস্য কবির হোসেন বলেন, আজ থেকেই সব ক্লাস চলবে। বন্ধ ঘোষিত তিনটি ছাত্র হল রোববার খুলে দেওয়া হবে। সিন্ডিকেটের এই সিদ্ধান্তের পর অবরোধ তুলে নিয়েছে শিক্ষার্থীরা; উপাচার্য ফিরে গেছেন তার বাংলোয়।
আন্দোলনকারী সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর মুখপাত্র সারওয়ার তুষার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ায় অবরোধ তুলে নেওয়া হয়েছে। তবে বিভিন্ন দাবিতে যে আন্দোলন চলছিল তা অব্যাহত থাকবে।
আন্দোলনকারীরা আরও অভিযোগ করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ‘অস্বচ্ছতার’ বিরুদ্ধে সাংস্কৃতিক সংগঠনের আন্দোলন দমনের জন্য উপাচার্য আমিনুল হক ভুঁইয়া পরিকল্পিতভাবে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে দ্বন্দ্ব বাধিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করেন।
আন্দোলনকারী সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর মুখপাত্র সারওয়ার তুষার বলেন, উপাচার্য আমাদের অন্দোলন দমিয়ে রাখার জন্য পরিকল্পিতভাবে ক্যাম্পাসে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করে বন্ধ করে দিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় না খোলা পর্যন্ত উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রাখা হবে।
বুধবার রাত ১টায় আন্দোলনকারীদের সামনে এসে রেজিস্ট্রার মো. ইশফাকুল হোসাইন বলেন, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় সিন্ডিকেট মিটিংয়ে শিক্ষার্থীদের দাবি গুরুত্বসহকালে বিবেচনা করা হবে। তবু বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১১টায় মিটিংয়ের পর বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ঘোষণা আসার আগ পর্যন্ত উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।

উপরে