জাকির নায়েককে মাহাথিরের হুঁশিয়ারি

জাকির নায়েককে মাহাথিরের হুঁশিয়ারি

প্রকাশিত: ১৭-০৮-২০১৯, সময়: ১৪:৩৭ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : মালয়েশিয়ায় স্থায়ী নাগরিকত্ব নিয়ে ২০১৫ সাল থেকে বাস করছেন ভারতের বিতর্কিত ধর্ম প্রচারক জাকির নায়েক। তবে সম্প্রতি বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে দেশটিতে তদন্তের মুখে পড়েছেন তিনি। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, জাকির নায়েকের স্থায়ী নাগরিকত্বের বিষয়ে পুলিশের তদন্তের ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করছে।

মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, জাতিগত দ্বন্দ্বের কোনো প্রমাণ পেলে জাকিরের স্থায়ী নাগরিকত্ব বাতিল হতে পারে। তিনি কী করছেন সে বিষয়ে পুলিশ তদন্ত করছে। যদি তিনি দেশের জন্য ক্ষতিকর কিছু করেন তাহলে তার স্থায়ী নাগরিকত্ব বাতিলের প্রয়োজন হবে।

এছাড়া সম্প্রতি মালয়েশিয়ার কেলানতানের কোতা বারুতে ‘এক্সিকিউটিভ টক বারসামা ড. জাকির নায়েক’ শিরোনামে আয়োজিত ধর্মীয় আলোচনা অনুষ্ঠানে বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান মাহাথির মোহাম্মদ।

ওই অনুষ্ঠানে নিজের স্বেচ্ছা নির্বাসন সংক্রান্ত একটি প্রশ্নের উত্তরে জাকির নায়েক বলেন, মালয়েশিয়ান চীনারা ‘ফিরে যান’। আপনারা এই দেশের ‘পুরোনো অতিথি’। ভারতে মুসলমানদের তুলনায় মালয়েশিয়ায় হিন্দুরা ১০০ শতাংশেরও বেশি অধিকার ভোগ করে।

তিনি বলেন, জাকির নায়েকের বক্তব্যের বিষয়টি পুরোপুরি পুলিশের ওপর রয়েছে। তারা গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছে।

শুক্রবার এ বিষয়ে জাকির নায়েককে সাত ঘণ্টা ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মালয়েশিয়ার গোয়েন্দা বাহিনী। শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে তিনি পুলিশ হেডকোয়ার্টারে প্রবেশ করেন এবং রাত সোয়া অআটটার দিকে বের হন। তবে এসময় তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

জাকির নায়েক একজন ভারতীয় নাগরিক। দুর্নীতির অভিযোগে ভারতে তিনি ‘ওয়ান্টেড’। জাকির নায়েক কয়েক বছর ধরে নির্বাসিত জীবন কাটাচ্ছেন। সিঙ্গাপুরে প্রবেশের ক্ষেত্রে জাকির নায়েকের উপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

এরই মধ্যে জাকির নায়েকের পিস টিভির প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে ভারত, বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশ। আর এরপর তিনি মালয়েশিয়ায় আশ্রয় নেন। তবে সে দেশেও তুমুল বিতর্ক হচ্ছে জাকির নায়েককে নিয়ে। দেশটি থেকে তাকে বের করে দেয়ার দাবিও জানিয়েছে একাধিক রাজনৈতিক দল। এরমধ্যেই তাকে নিষিদ্ধ করেছে মালয়েশিয়ার সারাওয়াক প্রদেশের সরকার।

প্রদেশটির উপপ্রধান মুখ্যমন্ত্রী জ্যামস জামুত মাসিং এবং প্রাদেশিক মন্ত্রী সিম কুই হাইয়ান এ সিদ্ধান্তের ব্যাপারে নিশ্চিত করেন। মাসিং বলেন, ‘জাকির নায়েকের মালয়েশিয়া বিরোধী বক্তব্য সারাওয়াকের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির জন্য বিপজ্জনক। এই জন্য তাকে এখানে প্রবেশে বাধা দিতে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

ভারতীয় বংশোদ্ভূত মালয়েশিয়দের বিরুদ্ধে কথা বলে প্রধানমন্ত্রীর সুনজরে আসার চেষ্টা করছেন জাকির, এমনটাই দাবি করেন মালয়েশিয়ার ন্যাশনাল প্যাট্রিয়টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি দাতুক মোহম্মদ আরশাদ রাজি। সংগঠনটির দাবি, মালয়েশিয়দের নিয়ে উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়া বন্ধ করুক জাকির নায়েক। মালয়েশিয়ার বাসিন্দাদের ধর্মের ভিত্তিতে তুলনা করা থেকে বিরত থাকতে তার প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

উপরে