কী করবেন বৃষ্টিতে ভিজে গেলে!

কী করবেন বৃষ্টিতে ভিজে গেলে!

প্রকাশিত: ০৩-০৭-২০১৯, সময়: ১৮:০২ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : মেঘ আর বৃষ্টি, গত কয়েকটা দিন এমনই কাটছে। এমন দিনে ঘর ছেড়ে বাইরে যেতে কার ইচ্ছে করে বলুন? কিন্তু কাজকর্মতো ফেলে রাখা যায় না। কাজের প্রয়োজনে বাইরে বের হয়ে বৃষ্টিতে ভিজে গেলেও বাঁধে বিপত্তি। জ্বর, সর্দি, কাশিতে পুরো নাস্তানাবুদ অবস্থা।

বৃষ্টি বিলাস কিংবা অনিচ্ছাকৃত ভেজা, সবক্ষেত্রেই প্রয়োজন বাড়তি কিছু সতর্কতা। নাহলে অসুস্থতায় ভুগতে হতে পারে। জেনে নিন বৃষ্টিতে ভিজে গেলে কী করা উচিত সেই সম্পর্কে কিছু তথ্য।

ভেজা কাপড় বদলে ফেলুন
বাইরে থেকে বাড়ি ফেরার সাথে সাথেই ভেজা কাপড় পাল্টে শুকনা কাপড় পরে ফেলুন। বেশিক্ষণ ভেজা কাপড়ে থাকলে সর্দি-কাশি হওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই সুস্থ থাকতে চাইলে যত দ্রুত সম্ভব ভেজা কাপড় বদলে ফেলা ভালো।

ব্রাশ দিয়ে ঘষে পা ধুয়ে ফেলুন
বৃষ্টি মানেই পা কাদায় মাখামাখি। রাস্তার ধুলোময়লা এবং রোগজীবাণু সব পায়ে লেগে যায় বৃষ্টিতে। তাই বাড়ি ফিরেই ব্রাশ দিয়ে ঘষে পা ধুয়ে ফেলুন। পা ধোঁয়ার সময় অ্যান্টিসেপটিক সাবান ব্যবহার করুন। নখের ফাঁকে জমে থাকা কাদামাটিও ভালো করে পরিষ্কার করে নিন।

কুসুম গরম পানিতে গোসল করে নিন
বৃষ্টির পানিতে ভেজার পরে হালকা গরম পানি দিয়ে গোসল করে নিন। এতে শরীরে লেগে থাকা সব জীবাণু ধুয়ে যাবে। বৃষ্টির কারণে সর্দি-কাশি হওয়ার ঝুঁকিও কমে যাবে গোসল করে নিলে। গোসলের সময় অবশ্যই অ্যান্টিসেপটিক সাবান ব্যবহার করবেন। গোসলের পর ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। সর্দি ও কাশি প্রতিরোধে মশলা চা অত্যন্ত উপকারী।

হেয়ার ড্রায়ার দিয়ে চুল শুকিয়ে নিন
গোসলের পর চুল শুকানোর পালা। দীর্ঘ সময় ধরে ভেজা ছিলেন। তাই চুল শুকাতে দেরী করা চলবে না। দ্রুত চুল শুকাতে হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করুন। চুলগুলোকে শুকিয়ে ঝরঝরে করে নিন।

এক কাপ মশলা চা খান
সর্দি ও কাশি প্রতিরোধে মশলা চা অত্যন্ত উপকারী। আদা, এলাচ, তেজপাতা, লবঙ্গ, দারচিনি দিয়ে তৈরি গরম গরম এক কাপ চা পান করে নিন। চায়ের প্রতি চ্মুুকে সতেজ হয়ে উঠবেন আপনি।

গরম স্যুপ খান
শরীরের তাপমাত্রা বাড়ানোর জন্য পুষ্টিকর এক বাটি গরম স্যুপ খেয়ে নিন। ভেজিটেবল, কর্ন কিংবা থাই যেটা আপনার পছন্দ সেটাই রাখুন খাবার তালিকায়। তবে খেয়াল রাখুন স্যুপটি যেন প্রচুর পুষ্টি উপাদান সমৃদ্ধ হয়। সম্ভব হলে স্যুপে আদার পরিমাণ বাড়িয়ে দিন।

ভিটামিন সি যুক্ত খাবার খান
ভিটামিন সি সবচেয়ে শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। ভিটামিন সি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে সর্দি কাশি থেকে শরীরকে রক্ষা করে। লেবু ও লেবুজাতীয় সব টক ফল ভিটামিন সি’র চমৎকার উৎস। আমলকী, কমলা, মালটা, আঙুর, পেঁপে, আনারস, জাম ইত্যাদি ফলে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন সি। তাই সর্দি-কাশির কবলে পড়তে না চাইলে কিছু ভিটামিন সি যুক্ত ফল খেয়ে নিন।

Leave a comment

আরও খবর

  • আদাপানির যেসব উপকার আপনাকে অবাক করবে
  • রামেক হাসপাতালে তিন ডেঙ্গু রোগী
  • মুখের ঘা দূর করার ঘরোয়া ৬ উপায়
  • মস্তিষ্কের মৃত্যুর পর অঙ্গদান, জীবন পেলেন চারজন
  • সঙ্গীনির ঘাড়ের নিঃশ্বাস হতে পারে আপনার মৃত্যু
  • সুন্দরী মেয়েরা পুরুষের হৃদরোগের জন্য দায়ী!
  • পিল না খেয়েও যেভাবে প্রেগনেন্সি বন্ধ করতে পারবেন!
  • ফ্যাটি লিভারের সমস্যা কমাতে যা খাবেন
  • যে ছয়টি হরমোনের সমস্যাই নারীদের ওজন বৃদ্ধির কারণ!
  • বেবি পাউডার বাড়াচ্ছে ক্যান্সারের ঝুঁকি!
  • চারঘাটে প্যারাসিটামল সিরাপের সংকট
  • চারদফা দাবিতে রাজশাহীতে নাসিং শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
  • কোন ফল খেলে বয়স বাড়ে না!
  • দ্বিগুন হয়েছে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা
  • ডায়াবেটিসের রোগীরা নিয়মিত কাঁচাকলা খেতে পারেন



  • উপরে