বাগমারার ওষুধের দোকানগুলোতে কী বিক্রি হচ্ছে?

বাগমারার ওষুধের দোকানগুলোতে কী বিক্রি হচ্ছে?

প্রকাশিত: ১৫-০৫-২০১৯, সময়: ২৩:৫৩ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগমারা : মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশ উপেক্ষা করে রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার প্রায় তিন শতাধিক দোকানে চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র ছাড়াই দেদারসে বিক্রি হচ্ছে এন্টিবায়োটিক ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ। বিষয়টি যেন দেখার কেউ নেই। তবে হাইকোর্টের নির্দেশনা নিয়ে উপজেলা প্রশাসন তৎপরতা হলেও স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তারা বিষয়টি আমলে নিতে অনীহা দেখাচ্ছে।

গত সোমবার উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় এন্টিবায়োটিক ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধের বিষয়টি উঠে আসে। সেখানে নানা প্রশ্নের সম্মুক্ষিন হন উপজেলা নির্বাহী এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তারা। যদিও এর আগে গত ১১ মে উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভুমি) আবুল হায়াতের নেতৃত্বে তাহেরপুর ও মোহনগঞ্জ বাজারের দুটি ফার্মেসিতে অভিযান চালিয়ে মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রির অপরাধে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে, বাগমারা উপাজলার ১৬টি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভা এলাকার বিভিন্ন হাট বাজারে প্রায় তিনশ’র বেশি ওষুধের দোকান রয়েছে। এসব দোকানগুলোর অধিকাংশেরই লাইসেন্স নেই। এমনকি এখানকার বিভিন্ন মুদিখানার দোকান ও পান বিড়ির দোকানেও দেদারসে বিক্রি হয় বিভিন্ন এন্টিবায়োটিক, নকল বেজাল নিম্নমানের ও মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ।

সেখানে চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র ছাড়াই বিক্রি হয় এন্টিবায়োটিক। দোকানদাররাই চিকিৎসক সেজে ওষুধ বিক্রি করে থাকেন। সম্প্রতি মহামান্য হাইকোর্ট চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র ছাড়া এনিটবায়োটিক বিক্রি নিষিদ্ধ ঘোষণা করলেও বাগমারার কোন ফার্মেসি মালিক সেই নির্দেশনা মানছেন না। তারা আগের নিয়মেই ব্যবস্থাপত্র ছাড়া নিজেদের খেয়াল খুশি মত এন্টিবায়োটিক বিক্রি করছে।

শুধু এন্টিবায়োটিকই নয় বাগমারা বিভিন্ন অলিতে গলিতে ব্যঙের ছাতার মত গজিয়ে ওঠা শত শত ওষুধের দোকানগুলোতে রয়েছে মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষধ। গ্রামের সহজ সরল রোগিদের এসব দোকানীরা প্রতারনার মাধ্যমে মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি করে থাকেন। এসব ওষুধ খেয়ে রোগ তো ভাল হয় না উল্টো আরো জটিল আকার ধারন করে।

একাধিক রোগি ও ভুক্তভোগিদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপাজলা সহকারি কশিশনার ভুমি আবুল হায়াত গত ১১ মে তাহেরপুর বাজারে এরশাদ ফার্মেসীতে অভিযান চালিয়ে মেয়াদ উত্তীর্ন ওষুধ বিক্রির অপরাধে ৩০ হাজার টাকা এবং একই অপরাধে মোহনগঞ্জের মহসিন ফার্মেসিতে অভিযান চালিয়ে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

সহকারি কমিশনার ভুমি আবুল হায়াত বলেন, এ দুটো ফার্মেসি তো বটেই বাগমারার অধিকাংশ ফার্মেসিতে ওষুধ বিক্রির ক্ষেত্রে কোন নীতিমালা অনুসরন করা হয় না। আমরা নিয়মিত মনিটরিংয়ের মাধ্যমে এসব অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা দূর করতে চাই।

এদিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিষয়টি নিয়ে গত সোমবার উপজেলার আইন শৃঙ্খলার সভায় বিভিন্ন সদস্যদের তীব্র প্রশ্নের মুখে পড়েন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: আনোয়ারুল কবীর। ওই মিটিং এ তিনি উপজেলার বিভিন্ন ক্লিনিকের অব্যবস্থাপনা, লাগামগীন মূল্য, মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধসহ ফার্মেসীগুলোর নানান অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার বিষষ উঠে আসে। তবে বিষয়গুলো তিনি পাশ কাটিয়ে যান। পরে মিটিং শেষ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিউল ইসলাম তার চেম্বারে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে ডেকে পাঠান এবং এ সংক্রান্ত মহামান্য হাইকোর্ট ও সরকারের কঠোর অবস্থানের কথা তুলে ধরে। একই সঙ্গে ওষুধ নিয়ে এ সব অনিয়ম দূর করতে তার দপ্তরের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: আনোয়ারুল কবীর নির্বাহী কর্মকর্তাকে আশ্বস্থ করে বলেন, বিষয়টি স্বাস্থ্য দপ্তরের উর্দ্ধতন পর্য়ায়ে জানিয়ে তাদের মতামতের ভিত্তিতে মাঠ পর্যায়ে করণীয়গুলো নির্ধারন করা হবে। এটা অতি দীর্ঘ সূত্রতার পর্যায়ে পড়ায় নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিউল ইসলাম স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে সাতদিনের সময় দিয়ে বলেন, এটা জনগনের জীবন মৃত্যুর বিষয়। এটা নিয়ে আমরা বসে থাকতে পারিনা। প্রয়োজনে আমি নিজেই অভিযানে নেমে পড়ব।

উপজেলা স্বাস্থও ও পারিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আনোয়ারুল কবীর বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত জটিল ও ঝুকিপূর্ন। তাই আমরা এর জন্য কিছু সময় চেয়েছি।

ইউএনও জাকিউল ইসলাম বলেন, হেলা ফেলায় অনেক সময় অতিবাহিত হয়েছে। স্বাস্থ্য ব্যবস্থা আজ নাজুক। চিকিৎসার জন্য দলে দলে রোগিরা এখন ভারত মুখী। এ থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। যে কোন মূল্যে যে কোন ভাবে দেশের ওষুধ ও চিকিৎসা ব্যবস্থাকে শৃঙ্খলার আনতেই হবে।

Leave a comment

আরও খবর

  • বাসি রুটিতে উপকার
  • ওষুধ ছাড়াই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের উপায়
  • দেশে প্রতিবছর অকেজো হচ্ছে ৪০ হাজার কিডনি
  • টমেটোর কার্যকরি ৫ স্বাস্থ্যগুণ
  • গমের চারার রসে কমবে যে অসুখ
  • হাসপাতালে দ্বিতীয় শিফট হচ্ছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
  • বাগমারার ওষুধের দোকানগুলোতে কী বিক্রি হচ্ছে?
  • স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের রাজশাহী জেলা ও রামেক কমিটি
  • অসুস্থ মাকে বেডে তোলায় কিশোরকে ডাক্তারের মারধর
  • রামেক হাসপাতালে সর্দি-জ্বরের ৪ ওষুধ ব্যবহার স্থগিত
  • রামেক হাসপাতালে কেনাকাটায় বড় ঘাপলা
  • আম কতটা স্বাস্থ্যকর!
  • হৃদরোগীদের জন্য রোজা বেশ উপকারী
  • কোলগেট টুথপেস্টে ক্যান্সারের উপাদান
  • ক্যান্সারের জীবাণু ধ্বংস করতে পারে ‘রোজা’



  • উপরে