সঠিক ডায়েটে সুস্থ থাকবে ‘হার্ট’

সঠিক ডায়েটে সুস্থ থাকবে ‘হার্ট’

প্রকাশিত: ০৯-০৫-২০১৯, সময়: ১৬:৩১ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : হৃদরোগ নিয়ন্ত্রণে শুধু ওষুধ নয় সঙ্গে প্রয়োজন একটি সঠিক ডায়েটের। অনেকক্ষেত্রেই বংশগত কারণে হার্টের সমস্যা দেখা দিলেও সঠিক চিকিৎসা এবং ডায়েটের মাধ্যমে তা প্রতিরোধ করা সম্ভব। ধূমপান, অতিরিক্ত স্ট্রেস, শরীরচর্চার অভাব ইত্যাদি নানাবিধ কারণে হার্টের সমস্যা হয়ে থাকে। তাছাড়া একটি সঠিক ডায়েটও এর কারণ হতে পারে।

জানেন কি? অতিরিক্ত ফ্যাটজাতীয় খাবার খেলে ধমনির গায়ে সেই ফ্যাট জমতে শুরু করে! ফলে রক্ত চলাচল ব্যাহত হয়। অনেকক্ষেত্রে আবার ধমনিতে রক্ত জমাট বেঁধে সৃষ্টি করে হার্ট অ্যাটাকের। আর এই ধরনের ব্লাড ভেসেল যদি মস্তিষ্কে যায়, তাহলেই দেখা দেয় স্ট্রোক। আপনি কি ধরনের খাবার খাচ্ছেন, তার উপরও আপনার হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য অনেকাংশে নির্ভরশীল। এমনকি যদি আপনার আগে থেকেও হার্টের সমস্যা থেকে থাকে, সেক্ষেত্রেও সঠিক ডায়েট মেনে চললে উপকার পাবেন। সঠিক খাবার আপনার ধমনি পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে এবং কোলেস্টেরল জমতে বাধা দেয়। ফলে রক্ত তরল এবং জমাটবিহীন থাকে এবং হার্টও ভাল থাকে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সঠিক ডায়েটটি-

১. দিনে অন্তত ২ থেকে ৩ রকমের ফল খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

২. সব ধরনের ভাজা-পোড়া, ময়দাযুক্ত খাবার, মিষ্টি এড়িয়ে চলুন। কারণ এই জাতীয় খাবারই পরবর্তীকালে ফ্যাটে রূপান্তরিত হয়।

৩. হোলগ্রেন সিরিয়াল যেমন- গম, ব্রাউন রাইস, জোয়ার, বাজরা ইত্যাদি বেশি করে খান।

৪. ভিটামিন ই এলডিএল কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে প্রতিদিন ২০০ থেকে ৪০০ মিলিগ্রাম ভিটামিন ই সাপ্লিমেন্ট নিতে পারেন।

৫. প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০ মিনিট জোর পাঁয়ে হাঁটুন। এতে ব্লাড শুগার, ট্রাইগ্লিসারাইড এবং কোলেস্টেরল সবই নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

৬. আপনার দৈনন্দিন ডায়েটে অন্তত ২৫ শতাংশ সবজি রাখুন (আলু বাদে)। সবজিতে প্রচুর ফাইবার থাকে যা কোলেস্টরেল কমাতে সাহায্য করে।

৭. প্রতিদিন ২ কোয়া রসুন কুচি খেতে পারেন। রসুন ভ্যাসোডায়ালেটর, অর্থাৎ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে। রসুনের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে এবং রক্ত তরল রাখতেও সাহায্য করে।

৮. যদি আপনি হার্টের সমস্যায় ভুক্তভোগী হন, সেক্ষেত্রে ডায়েটে বেশি করে কাঁচা পেঁয়াজ, আদা, কালো মাশরুম, রসুন এবং গ্রিন টি রাখুন। এগুলো রক্ত জমাট বাঁধতে দেয়না।

৯. আপনার করোনারি হার্ট ডিজিজ থাকলে, প্রতিদিন একবাটি করে সেদ্ধ কালো বা সবুজ ছোলা খান। সামান্য অলিভ অয়েল এবং পেঁয়াজ মিশিয়ে স্যালাড বানিয়েও খেতে পারেন। এতেও কোলেস্টেরল কমবে।

১০. সবুজ সবজির রস যকৃতের পক্ষে ভাল। আর যকৃতই ফ্যাট হজম করতে সাহায্য করে। তাই যকৃত ভাল থাকলে ফ্যাট হজমও ভাল হয়। এছাড়া সবুজ সবজির রস অ্যানিমিয়া, শরীর কিংবা মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে এবং রক্ত বিশুদ্ধ ও তরল রাখতে সাহায্য করে। তাই প্রতিদিন একগ্লাস করে টাটকা সবজির রস খেতে পারেন। সেটা ধনেপাতা এবং পুদিনার রসও হতে পারে আবার হুইট গ্রাস জুসও হতে পারে। যার ফলে স্বাস্থ্যও ভাল থাকবে।

উপরে