‘এতটা বোকামি আমি কীভাবে করতে পারি?’

‘এতটা বোকামি আমি কীভাবে করতে পারি?’

প্রকাশিত: ০৫-০৯-২০১৯, সময়: ১৬:৫০ |
খবর > বিনোদন
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সাম্প্রতিক সময়ে অনুষ্ঠিত হওয়া ‘কে হবে মাসুদ রানা’ রিয়েলিটি শো নিয়ে এখনো উত্তাপ রয়েছে স্যোশাল মিডিয়ায়। বিচারকদের রীতিমতো তুলোধনা করছেন নেটিজেনরা! দর্শকদের অভিযোগ, প্রতিযোগীদের নিয়ে এক ধরনের তামাশা করা হচ্ছে এই শোতে। এই শোয়ের বিচারকের দ্বায়িত্ব পালন করেছেন ছোট পর্দার অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া। তাকে নিয়েও দর্শকরা ট্রল করছেন।

এবার এই প্রসঙ্গ নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বললেন শবনম ফারিয়া নিজে। তিনি বলেন, আমি কেন অপমান করবো প্রতিযোগিদের? আজ আমি যাদের বিচারক হয়ে এসেছি কাল তারাই আমার সহকর্মী হবে। এতটা বোকামি আমি কীভাবে করতে পারি?

শবনম ফারিয়া আরো বলেন, সেখানে বিচারক একা আমিই ছিলাম না, আমি শুধু ব্যক্তিগতভাবে বলতে পারি কাউকে অপমান করিনি। আপনারা ভিডিওগুলো খেয়াল করলে বিষয়টি ধরতে পারবেন। এক শ্রেণি শুধু স্টিল ইমেজ ছড়িয়ে বিচারকদের বিরুদ্ধে সবাইকে ক্ষেপিয়ে তোলার চেষ্টা করছে। আমি বলবো আপনারা বোঝার চেষ্টা করুন, আসলে কী ঘটেছে।

মাসুদ রানা চরিত্রের সংশ্লিষ্ট প্রশ্ন করেছেন বলে দাবি করেছেন অভিনেত্রী। তিনি বলেন, আমার প্রশ্ন ছিল মাসুদ রানা নিয়ে। মাসুদ রানা নিয়ে তাদের ভিজুয়ালাইজেশন কী, মাসুদ রানাকে তারা আত্মস্থ কতটুকু করতে পেরেছে।

এদিকে, মাসুদ রানার প্রকল্পের অধিকর্তা ইবনে হাসান খান বলছেন, পুরো বাছাই পর্বটি ছিল সাজানো, এতে বিচারকদের কোনো দোষ নেই। তারা প্রত্যেকেই একটি পরিকল্পিত স্ক্রিপ্টের মধ্যে (চিত্রনাট্য) থেকেই কথা বলেছেন। প্রতিযোগীদের সঙ্গে কোনো দুর্ব্যবহার করা হয়নি। কারণ, এখনো পর্যন্ত কোনো সাংবাদিক কিংবা গণমাধ্যমের কাছে প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া কোনো ছেলে অভিযোগ দেয়নি। তো এই অভিযোগটা কোথা থেকে আসলো? এটা এসেছে ফেসবুক থেকে।

ইবনে হাসান গণমাধ্যমকে বলছেন, ‘বাছাই পর্বে যা দেখেছেন, তার পুরোটাই ছিল সাজানো, চিত্রনাট্য নির্ভর। এই প্রকল্প অধিকর্তা হিসেবে বলছি, পুরোটাই চ্যানেল আইয়ের ক্রিয়েটিভ টিম, ইউনিলিভারের ক্রিয়েটিভ টিম, অ্যাডকম ক্রিয়েটিভ টিম থেকে সাজানো হয়েছে। বিচারক যারা ছিলেন তাদের উপর দ্বায় চাপানো বুদ্ধিমানের কাজ হবে না।

যারা প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন, তাদের কাছ থেকে যদি নির্দিষ্টভাবে কোনো অভিযোগ আসে, প্রকল্প অধিকর্তা হিসেবে আমি অবশ্যই যা করণীয় হবে সেই ব্যবস্থা নেব। তারা তো কেউ বলছে না যে তারা অপমানিত হয়েছেন, অস্বস্তিবোধ করেছেন! এমন কোনো অভিযোগই তো আমি পাইনি।

সম্প্রতি কে হবেন মাসুদ রানার বিভিন্ন এপিসোডের ভিডিও ক্লিপস সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। এরপরই শুরু হয় বিচারকদের সমালোচনা।

Leave a comment

উপরে