‘চাইলে আমাকে বয়কট করুন’

‘চাইলে আমাকে বয়কট করুন’

প্রকাশিত: 13-07-2019, সময়: 16:39 |
খবর > বিনোদন
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : বিনোদন সাংবাদিকদের সঙ্গে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতের ঝামেলা বেশ বড় আকার ধারণ করেছে। ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’র গানের টিজার লঞ্চের অনুষ্ঠানে হওয়া সাংবাদিক জাস্টিন রাওয়ের সঙ্গে তার বিতর্কের ঘটনায় কোনোভাবেই ক্ষমা চাইতে নারাজ কঙ্গনা। যদিও গোটা ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’র প্রযোজক একতা কাপুর।

ক্ষমা না চাইলে কঙ্গনাকে বয়কট করার কথা জানিয়ে দিয়েছে ‘এন্টারটেইনমেন্ট গিল্ড অফ ইন্ডিয়া’। এ প্রসঙ্গে নিজের বক্তব্যের ভিডিয়ো রেকর্ড করেছেন অভিনেত্রী। যেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন কঙ্গনার বোন রঙ্গোলি চান্দেল।

ভিডিও বার্তায় কিছু অংশের সাংবাদিকদের প্রশংসা করেছেন কঙ্গনা, আবার সাংবাদিকদের একাংশের কড়া সমালোচনাও করেছেন অভিনেত্রী। কঙ্গনার কথায়, সব জায়গাতেই ভালো লোকদের পাশাপাশি কিছু খারাপ লোকজনও থাকে। এমন অনেক সাংবাদিক রয়েছেন যারা সবসময় আমায় উৎসাহিত করছেন। আমার এই সাফল্যের পিছনে মিডিয়ার একটা বড় হাত রয়েছে।

কঙ্গনা আরো বলেন, যারা আমার পাশে দাঁড়িয়েছেন, আমাকে কাজে উৎসাহ দিয়েছেন তাদের কাছে আমি চিরকাল কৃতজ্ঞ থাকব। আবার কিছু লোকজন রয়েছেন যারা সাংবাদিকতার এই জায়গাটাকে নষ্ট করছেন। ইচ্ছাকৃতভাবে দেশের একতাকে নষ্ট করার প্ররোচনা দেন। মিথ্যা প্রচার করেন, দেশদ্রোহী কাজকর্ম করেন। এধরনের এক সাংবাদিকের সঙ্গেই আমার ওইদিন সাংবাদিক সম্মেলনে কথা হয়েছিল। আমি ওর কথার জবাব দিতে অস্বীকার করি। আর তারপরই কিছু লোকজন এন্টারটেইনমেন্ট গিল্ড বানিয়ে আমাকে বয়কট করার হুমকি দেন। এর আগে প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধ করতে আমি এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার হয়ে প্রচার করেছিলাম, সেসময়ও ওই সাংবাদিক একই কাজ করেছিলেন। এক শহিদের নামে ছবি বানিয়েছিলাম তিনি সেটা নিয়েও মজা মশকরা করেছিলেন।

কঙ্গনার আরো অভিযোগ, কোনো কিছু ঘটলে তা তর্ক-বিতর্কের মাধ্যমে প্রতিবাদ করা সাংবাদিকদের অধিকার। আর কিছু লোকজন সেগুলি না করে গালিগালাজ করেন, নিজের এই পেশাকেই এরা নিচে নামিয়ে দেন। এধরনের দেশদ্রোহী, বিকিয়ে যাওয়া সংবাদিকদের আমার কাছে কোনো মূল্যই নেই। শুধুমাত্র তোমাদের মত লোকজন নেই বলেই আমি আজ দেশের অন্যতম টপ, হায়েস্ট পেড অভিনত্রীদের মধ্যে অন্যতম হতে পেরেছি। তোমরা যদি আমায় বয়কট করতে চাও তাহলে করতে পারো, এতে আমার কিছুই যায় আসে না।

প্রসঙ্গত কঙ্গনার সঙ্গে জাস্টিনের বিবাদের সূত্রপাত হয়েছিল ‘মণিকর্ণিকা: দ্যা কুইন অফ ঝাঁসি’ সংবাদিক সম্মেলনের সময়। যেখানে সাংবাদিক জাস্টিন রাও তাকে প্রশ্ন করেছিলেন পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার তার ছবিকে কেন পাকিস্তানে মুক্তি দেয়া হচ্ছে? এই প্রশ্নের উত্তরে কঙ্গনা যা উত্তর দিয়েছিলেন সেটাই টুইট করেছিলেন জাস্টিন রাও।

এরপরে সম্প্রতি হওয়া জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়ার গানের টিজার লঞ্চের অনুষ্ঠানে সাংবাদিক জাস্টিন রাওয়ের উত্তর দিতে অস্বীকার করেন কঙ্গনা। তার অভিযোগ জাস্টিন ‘মণিকর্ণিকা: দ্যা কুইন অফ ঝাঁসি’ ছবিটি নিয়ে খারাপ প্রচারে চালিয়েছেন। এক্ষেত্রে কঙ্গনা ও জাস্টিনের তর্কের কারণেই এই পরিস্থিতি তৈরি হয়।

উপরে