পেন্সিলে আঁকা ছবি, নাকি হাই ডেফিনেশন ফটোগ্রাফ!

পেন্সিলে আঁকা ছবি, নাকি হাই ডেফিনেশন ফটোগ্রাফ!

প্রকাশিত: ০৪-০৪-২০১৭, সময়: ১২:১৪ |
Share This

পদ্মা টাইমস ডেস্ক : নাইজেরিয়ার আর্টিস্ট আরিনজে স্ট্যানলির পেন্সিলে আঁকা ছবি দেখে বিভ্রান্ত হন সবাই।
এগুলো কি পেন্সিলে আঁকা ছবি, নাকি হাই ডেফিনেশন সাদা কালো  ফটোগ্রাফ! বিস্ময়ে ভাষা হারিয়ে ফেলেন দর্শকরা। সত্যিকার অর্থেই তার আঁকা পেন্সিলের স্কেচগুলো হতবাক করার মতো।
ছোটবেলা থেকেই কাগজের সঙ্গে সখ্যতা ছিল স্ট্যানলির। কারণ তার পরিবারের মালিকানাধীন একটি কাগজের মিল ছিল। তাই ছোটবেলা থেকে কাগজে আঁকাআঁকি করার সুযোগ পেতেন। তবে স্ট্যানলি হাইপার রিয়েলিজম বিষয়ে কাজ শুরু করেন ২০১২ সালে। পরের বছর পেশাদার আর্টিস্টে পরিণত হন।
আশ্চর্যের বিষয় হলো স্ট্যানলি কখনো কোনো আর্ট স্কুলে প্রশিক্ষণ নেননি, বরং ছোটবেলা থেকে শুধু চর্চার মাধ্যমেই নিজের দক্ষতা এই পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন। আর তার চমকে দেওয়া অসাধারণ আঁকার ক্ষমতা দেখে এটা বুঝা যায় যে, খুব অল্প সময়ে অনেক পথ পাড়ি দিয়ে এসেছেন তিনি।
স্ট্যানলি তার এই বিশেষ দক্ষতা প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকালে বলেছেন, ‘একটা স্লোগানকে সামনে রেখে আমি কাজ করি। আর তা হলো- চর্চা, চর্চা  ও অধ্যবসায়। এত বছর ধরে এই চর্চাই আমাকে পথ দেখিয়ে নিয়ে এসেছে, এখনো পথ দেখাচ্ছে। অবিরত চর্চা আমার দক্ষতা বাড়িয়েছে তা ঠিক, তবে অধ্যবসায় ছাড়া আমার এ পর্যায়ে আসা সম্ভব হতো না।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমি একেকটি ছবি আঁকতে ২০০ ঘণ্টারও বেশি সময় নিই। দিনে অন্য কাজে ব্যস্ত থাকি, তাই রাতেই আঁকার কাজ করতে হয়।’
স্ট্যানলির আরেকটি বিশেষ গুণ হলো- যখন কোনো মানুষের ছবি আঁকেন, তখন  সে মানুষের চুলের ধরণ পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে গবেষণা করে সে রকম করেই আঁকেন তিনি। আর ছবি আঁকার বিষয়ে নিজের দেশেরই নামকরা আর্টিস্ট কেলভিন ওকাফোর তাকে বেশ অনুপ্রাণিত করেছে বলে জানান।

উপরে