রাজশাহীতে ভোটে লড়তে চান এক ডজন নারী

রাজশাহীতে ভোটে লড়তে চান এক ডজন নারী

প্রকাশিত: ১২-১১-২০১৮, সময়: ১৮:১০ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক : ব্যাপক তোড়জোড় শুরু হয়েছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহীর ৬ সংসদীয় আসনে। বর্তমান এমপিদের সাথে পাল্লা দিয়ে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টির নেতারা চোষে বেড়াচ্ছেন ভোটের মাঠ। এবারে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রায় এক ডজন নারী নেত্রী মনোনয়ন প্রত্যাশি।

রাজশাহীর বেশ কয়েকটি আসনে আগের সকল নির্বাচনী তোড়জোরকে পিছনে ফেলে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন যুদ্ধে নাম লেখিয়েছেন বেশ কয়েকজন নারী নেত্রী। তারাও রয়েছেন ভোটের মাঠে। নারী কোটায় না যেয়ে সরাসরি নির্বাচনে অংশ নিতে দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপে ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা। পাশাপাশি নির্বাচনি প্রচারণাও চালাচ্ছেন নিজ নিজ এলাকায়। নিজ নিজ এলাকায় উঠান বৈঠক, সমর্থক সমাবেশ ও গণসংযোগ করে চলেছেন। বর্তমানে তারাও মনোনয়ন দৌড়ে ঢাকায় অবস্থান করছেন।

নারীর ক্ষমতায়ন জনপ্রতিনিধিত্বে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা ৩৩ শতাংশ নারীকে সরাসরি মনোনয়ন দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সেটার বাস্তবায়নে নারীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। এবার রাজশাহীর ছয়টি সংসদীয় আসনের মধ্যে তিনটি এলাকা থেকে মনোনয়ন পেতে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেত্রীরা প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজশাহী ৬ সংসদীয় আসনের মধ্যে ৩ সংসদীয় এলাকা থেকে সরাসরি মনোনয়ন পেতে আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নারী নেত্রী দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। সমানে চালাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণাও।

জানা গেছে, বিএনপিসহ ঐক্যফ্রন্টের অনেক নারী নেত্রীও রাজশাহীর ৬ আসনে দলীয় মনোনয়ন চাইবেন। তারাও এখন ঢাকায় অবস্থান করছেন।

এরমধ্যে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি ৪ নারী নেত্রী। এরা হলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সংরক্ষিত আসনের নারী সাংসদ বেগম আখতার জাহান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মর্জিনা পারভীন, সাবেক মন্ত্রী জিনাতুন নেসা তালুকদার ও রোখসানা মেহেবুব চপলা।

রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) ও ৪-বাগমারা আসন থেকে মনোনয়ন পেতে চান সাবেক মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবং জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যাপক জিনাতুননেসা তালুকদার। তিনি ইতোমধ্যে দলীয় মনোনয়ন উত্তোলন ও দাখিল করেছেন। তিনি একজন ক্লিন ইমেজের প্রার্থী বলে এলাকায় প্রচার আছে।

এছাড়াও রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসন থেকে মনোনয়ন পেতে কাজ করছেন রাজশাহী বিবিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা ও কেন্দ্রীয় নেত্রী অধ্যাপক নার্গিস সুরাইয়া সুলতানা শেলী। তিনি রাজশাহী জেলা যুব মহিলা লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। তিনি দুই দফা জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ছিলেন। দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন।

বিএনপি থেকেও রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে মনোনয়ন পেতে চান সাবেক সাংসদ ও বিএনপি নেত্রী জাহান পান্না। তিনি বলেন, বিএনপি থেকে এবার সরাসরি নির্বাচনে দলের মনোনয়ন পেতে চান। এজন্য তিনি নিজেকে যোগ্যও মনে করেন।

এছাড়া বিএনপি থেকে সংরক্ষিত আসনে জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য শহিদুন নাহার কাজী হেনা, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের দুইবার নির্বাচিত কাউন্সিলর শামসুন নাহার, এ্যাডভোকেট রওশন আরা পপিও মনোনয়ন প্রত্যাশি।

আরও খবর

  • মনোনয়ন প্রত্যাশীর ‘লন্ডনে টাকা ঢালার’ ঘটনা বললেন প্রধানমন্ত্রী
  • একুশে বইমেলায় রাজশাহীর তরুণ লেখকদের বই
  • রাজশাহীতে প্রতীক পেলেন ৬০ প্রার্থী
  • রাসিক বর্জ্য: ২৫ টাকা ব্যয়ে মিলবে ১ লিটার ডিজেল
  • যে কারণে রাবির শিক্ষক নিয়োগ নীতিমালা শিথিল
  • আবারো বিতর্কে হুদা-মাহবুব
  • রাজশাহীতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ৫ প্রার্থী
  • বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেবে আরব আমিরাত
  • তৃণমূলেও নতুন নেতৃত্ব
  • যেমন হবে রাজশাহীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার
  • বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে শাস্তির সিদ্ধান্ত আ.লীগের
  • রাজশাহীতে পদ টিকাতে স্ত্রী সন্তানের কথা অস্বীকার ছাত্রলীগ নেতার
  • রাজশাহীর ৬৬ উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসক নেই
  • শহীদ জোহা দিবসের ৫০ বছর, স্বীকৃতির দাবি
  • রাজশাহীতে প্রতিদ্বন্দ্বী থাকলো না তিন প্রার্থীর


  • উপরে