রাজশাহী-১ আসনে বিএনপির দুশ্চিন্তা জামায়াত

রাজশাহী-১ আসনে বিএনপির দুশ্চিন্তা জামায়াত

প্রকাশিত: ১০-০৮-২০১৮, সময়: ১৩:৪০ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনে বিএনপির মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে জামায়াত। নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধনহীন দলটির ভারপ্রাপ্ত আমির ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান এখানে মনোনয়ন চাইতে পারেন। এটা এ আসনের সাবেক এমপি ও বিএনপি সরকারের সাবেক প্রভাবশালী মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হকের সামনে এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

তাছাড়া বিএনপির আরও তিন নেতা অনেক দিন থেকেই এ আসনের প্রার্থী হতে মনোনয়ন চেয়ে আসছেন। তবে এসব নেতার চেয়ে জামায়াতই বড় দুশ্চিন্তার কারণ বিএনপির জন্য। কারণ জোটগত নির্বাচন হলে বিএনপিকে যে কটি আসন জামায়াতকে ছাড়তে হবে তার মধ্যে অন্যতম রাজশাহী-১ আসন।

গোদাগাড়ী ও তানোর উপজেলা নিয়ে গঠিত রাজশাহী-১ আসনটি জেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত হয়। এখান থেকে আওয়ামী লীগ বা বিএনপির যিনিই এমপি নির্বাচিত হয়েছেন, তিনিই পেয়েছেন মন্ত্রিত্ব। তাই এ আসনে প্রার্থী হওয়ার প্রতিযোগিতা বরাবরই বেশি থাকে।

১৯৯১ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত টানা তিনবার এমপি নির্বাচিত বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার আমিনুল হক। দুই দফায় মন্ত্রীও ছিলেন। ক্ষমতায় থাকাকালে গোদাগাড়ী ও তানোর অঞ্চলের রাস্তাঘাট তৈরি করেন। এ ছাড়া তিনি সেসময় এলাকার বেকার যুবকদের পুলিশ বাহিনীসহ বিভিন্ন দপ্তরে চাকরি দেন। এ কারণে বিএনপি ও সাধারণ ভোটারদের মধ্যে তার ইতিবাচক ভাবমূর্তি রয়েছে।

এ ছাড়া গোদাগাড়ী-তানোরে তার বিকল্প কোনো নেতাও এখন পর্যন্ত গড়ে ওঠেনি। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে তিনি দীর্ঘদিন ধরে মাঠে রয়েছেন। তাই আসছে নির্বাচনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির এই ভাইস প্রেসিডেন্ট মনোনয়ন পাবেন বলে মনে করেন দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

তবে আসনটি থেকে জোটগতভাবে মনোনয়ন পেতে চেষ্টা করছেন জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির ও ১৯৮৬ সালে এমপি নির্বাচিত অধ্যাপক মুজিবুর রহমান। এ নিয়ে কিছুটা হলেও দুশ্চিন্তায় ব্যারিস্টার আমিনুলের কর্মী-সমর্থকরা। কেননা মুজিবুর রহমানের কেন্দ্রীয়ভাবে শক্ত প্রভাব রয়েছে। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিবিরের নেতা ছিলেন। অল্প কিছুদিন গোদাগাড়ীর একটি কলেজে ইংরেজির শিক্ষক হিসেবে শিক্ষকতাও করেন।

আশির দশক থেকে এ জামায়াত নেতা ঢাকায় অবস্থান করছেন। জোটের একটি বড় দলের প্রধান হিসেবে বিএনপির হাইকমান্ডের সঙ্গে তার সখ্য রয়েছে। তাই জোটগতভাবে নির্বাচনে মুজিবুর রহমানও মনোনয়ন পেতে পারেন বলে আশা করছেন জামায়াত নেতাকর্মীরা।

আরও খবর

  • নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন শুরু মেয়র লিটনের
  • রাজশাহীর একটিসহ সরকারি হলো আরো ৪৩ হাইস্কুল
  • রাজশাহীতে নেতাকেন্দ্রিক তৃণমূল, বিপাকে আ.লীগ
  • বাবা-মাকে হত্যার দায়ে ছেলের যাবজ্জীবন
  • রাজশাহীর পদ্মায় কিশোরীর লাশ
  • হয়রানি কমাতে আরএমপিতে ই-ট্রাফিকিং
  • ‘জগাখিচুড়ির ঐক্যফ্রন্ট বেশিদিন টিকবে না’
  • শ্বাসরুদ্ধকর জয় টাইগারদের
  • মোহনপুরে বিএনপি-জামায়াতের সভাস্থলে ৮ হাতবোমা
  • পবায় মাদ্রাসার অধ্যক্ষ নিয়োগ কেন্দ্র করে মামলা
  • ‘তোমরা যেটা করেছ, আমরাও সেটা পারি’
  • বাগমারায় শিক্ষার স্বর্ণযুগ
  • ‘২০ লাখ তরুণ-তরুণীকে আইসিটি সেক্টরে আনা হবে’
  • বাংলাদেশে আসছে আরও ৫ লাখ রোহিঙ্গা
  • কলেরায় নিহত ৯৭, আক্রান্ত ৩১২৬


  • উপরে