রাজশাহীতে ৫০ গ্রাম হেরোইন বহনে নারীর যাবজ্জীবন

রাজশাহীতে ৫০ গ্রাম হেরোইন বহনে নারীর যাবজ্জীবন

প্রকাশিত: মার্চ ১৯, ২০২০; সময়: ৯:৪৪ অপরাহ্ণ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক : ২০১৩ সালে পুঠিয়া থানায় দায়ের করা মামলায় এক নারীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহীর জেলা ও দায়রা জজ মীর শফিকুল আলম তার এজলাস কক্ষে এ রায় প্রদান করেন। এ সময় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এডভোকেট ইব্রাহীম হোসেন ও আসামী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট এরশাদ আলী ঈশা উপস্থিত ছিলেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামী হলেন, রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দঘাট থানার সাকিমপুরা ভিটা এলাকার মৃত: আলী মিয়ার স্ত্রী মালেকা বেওয়া ওরফে পেয়ারা বেগম।

আদালতের রায়ে উল্লেখ করা হয়, রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী তার বিরুদ্ধে ১৯৯০ সালের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ১৯(১) এর টেবিলের ১(খ) ধারার অভিযোগ সন্দেহাতিতভাবে প্রমাণ করতে সক্ষম হওয়ায় তাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করা হয়েছে। জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের সশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী (পিপি) এডভোকেট ইব্রাহীম হোসেন বলেন, পেয়ারা বেগম পেশায় একজন মাদক ব্যবসায়ী। তিনি বিভিন্ন সময় জেল খাটলেও কোন সংশোধন হয়নি। গত ২০১৩ সালের ২৭ জুলাই তারিখে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার রহনপুর থেকে ঢাকাগামী হানিফ এন্টারপ্রাইজ বাসে মাদক নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। রাত্রি সোয়া ১২টার সময় বেলপুকুর বাইপাস এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুঠিয়া থানার তৎকালিন এসআই ডেভিড হিমাদ্রী বর্মা অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় মালেকা বেওয়ার পাশের আসনের যাত্রী সাবিনা ইয়াসমিনের দ্বারা তার দেহ তল্লাশি করে ৫০ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করা হয়।

আসামী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট এরশাদ আলী ঈশা বলেন, মালেকা বেওয়া একজন বয়স্ক মহিলা ছিলো। হয়তো এ মামলায় জামিনও পেতো। কিন্তু জামিন হওয়ার পর আর আমাদের সাথে সে যোগাযোগ করেনি। তার এ ব্যাপারে আমাদের আর কিছু করার নেই।

Leave a comment

উপরে