পত্নীতলায় এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

পত্নীতলায় এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ১১-১১-২০১৯, সময়: ১৯:০০ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, পত্নীতলা : নওগাঁর পত্নীতলায় স্কুলের শিক্ষকের অশোভনীয় আচরণে রাব্বি হাসান (১৬) নামে এক এসএসসি পরিক্ষার্থীর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। গত রোববার গগণপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাব্বি উপজেলার ঘোষনগর ইউনিয়নের কোতালী গ্রামের আতোয়ার হোসেনের ছেলে। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে পরিবারে নেমে এসেছে শোকের ছাঁয়া। এঘটনায় সোমবার স্কুলের সামনে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানান, রোববার বিকালে শিক্ষার্থী রাব্বি মা কে সাথে নিয়ে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরুনের করার জন্য বিদ্যালয়ে যান। কিন্তু দুটি সাবজেক্টে নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহন না করায় প্রধান শিক্ষক ফরম পূরুণ না করে স্কুল থেকে রাব্বি ও তার মায়ের সাথে অশোভনীয় আচরণ করে তারিয়ে দেন। এরপর রাব্বি নিজ বাড়িতে ফেরার পথে কোতালী ব্রীজ এলাকায় জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। স্থানীয়দের সহযোগীতায় রাব্বিকে পত্নীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। রাব্বির মৃত্যুর খরব ছরিয়ে পড়লে স্কুলকের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা সোমরার সকাল থেকে স্কুলের সামনে বিক্ষোভ করেন। এবং প্রধান শিক্ষক মোয়াজ্জেম হোসেন ও সহকারী প্রধান শিক্ষক বকুল হোসেনের বিচার দাবি করেন। দুপুর ১২টায় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ঘোষনগর ইউপি চেয়ারম্যান আবু বকর সিদ্দিক এবং পত্নীতলা থানা পুলিশ আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করেন।

এবিষয়ে নিহত রাব্বির বড় চাচা ফেরদৌস হোসেন বলেন, আমার ভাতিজা স্কুলে গিয়েছিল ফরম পূরুণের করার জন্য প্রধান শিক্ষক তাকে পরিক্ষা দিতে দিবেনা তাই অপমান করে তারিয়ে দিয়েছে। এই অভিমান নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ব্রেনস্টোক করে মারা যান। আমি প্রধান শিক্ষক ও সহকারি প্রধান শিক্ষকের শাস্তির দাবি করছি।এবিষয়ে অভিযুক্ত গগণপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো.মোয়াজ্জেম হোসেন সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এবিষয়ে বক্তব্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এবিষয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ঘোষনগর ইউপির চেয়ারম্যান আবু বকর সিদ্দিক জানান, এধরনে মৃত্যু সত্যিই দুঃখজনক। ছেলেটি ২টি বিষয়ে টেস্ট পরিক্ষা দেয়নি। নিয়ম অনুযায়ী সে পরিক্ষা দিতে পারবেনা। শিক্ষকরা সে বিষয়ে শিক্ষার্থীর মা কে জানিয়ে দেন।

এবিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোচাহাক আলি বলেন, ঘটনাটি প্রধান শিক্ষকের কাছে শুনেছি। পরিবারে পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখব।একই বিষয়ে পত্নীতলা থানার ওসি পরিমল চক্রবর্তী জানান, আমরা খবর পেয়ে গগণপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে শিক্ষার্থীদের সরিয়ে দিয়েছি। তবে স্কুল ছাত্র রাব্বির কি কারনে মৃত্যু হয়েছে আমি সে বিষয়ে কিছুই জানিনা। স্কুলের সভাপতি, প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা আমাকে কিছুই বলেনি।

উপরে