ঈদের ছুটিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অফিস খোলা রাখার নির্দেশ

ঈদের ছুটিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অফিস খোলা রাখার নির্দেশ

প্রকাশিত: ০৭-০৮-২০১৯, সময়: ২৩:২৮ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ডেঙ্গু রোধে ঈদের ছুটিতে আগামী ১২ ও ১৩ আগস্ট ছাড়া অন্যান্য সবদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অফিস খোলা রাখতে হবে। এছাড়া পবিত্র ঈদুল আযহার ছুটির সময় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে ৬ থেকে ১০ জনের টিম গঠন করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও আশপাশের জায়গা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

একজন শিক্ষকের নেতৃত্বে, কর্মচারী, স্কাউট, বিএনসিসি এবং শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে টিম গঠন করে প্রতিষ্ঠানের আশেপাশে স্বচ্ছ পানি জমে থাকার সম্ভাব্য স্থানগুলো একদিন পরপর পরিষ্কার করতে হবে। এছাড়া রোস্টার ডিউটির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) জারি করা পরিপত্রে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে এসব নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, বছরের শুরুতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রণীত ছুটির তালিকায় পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ১০ থেকে ২৩ আগস্ট সব সরকারি-বেসরকারি কলেজ এবং ৮ থেকে ১৯ আগস্ট পর্যন্ত সব সরকারি-বেসরকারি হাইস্কুল স্কুল ও মাদরাসা বন্ধ থাকার কথা বলা হয়েছে।

জানা গেছে, চলমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। এরই ধারাবাহিকতায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে সরকারি ছুটিতে ১২ দিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।

এ সময় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষক-কর্মচারী উপস্থিত থাকবেন না। তাই, ঈদের ছুটিতে খেলার মাঠ, ফুলের টব বা পানি জমে থাকে এমন কোন পাত্রে এডিস মশার প্রজনন প্রক্রিয়া আরও বেগবান হতে পারে। এতে ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রম ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে আরও বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। সে প্রেক্ষিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য ৬দফা নির্দেশনা জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

পরিপত্রে বলা হয়, ঈদুল আযহার ছুটিতে একজন শিক্ষকের নেতৃত্বে, কর্মচারী, স্কাউট, বিএনসিসি এবং শিক্ষার্থীদের সমন্বয় ৬ থেকে ১০ জনের টিম গঠন করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং এর আশেপাশের জায়গায় স্বচ্ছ পানি জমে থাকতে পারে এমন সম্ভাব্য স্থান যেমন ফুলের টব, পানির ট্যাপের আশেপাশের জায়গা, পানির পাম্প, ফ্রিজ ও এসির পানি জমার ট্রে, বাথরুমের পানির বালতি ও পাত্র, স্কুল-কলেজের আশেপাশে পড়ে থাকা আইসক্রিমের বক্স, পরিত্যাক্ত চায়ের কাপ, ডাবের খোসা, ইত্যাদি চিহ্নিত করে প্রতিদিন একদিন অন্তর পরিষ্কার করতে হবে।

Leave a comment

উপরে