হলের সিট দখল নিয়ে রুয়েট ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা

হলের সিট দখল নিয়ে রুয়েট ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা

প্রকাশিত: 15-05-2017, সময়: 22:26 |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাবি : আবাসিক হলের সিট দখলকে কেন্দ্র করে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে রুয়েটের শহীদ লে. সেলিম হলে এ ঘটনা ঘটে।
ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সময় এক ছাত্রলীগ কর্মী আহত হন। আহত আল নাহিয়ান যন্ত্রকৌশল বিভাগের ১৫ সিরিজের শিক্ষার্থী। তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক্স বিভাগের ১৩ সিরিজের শিক্ষার্থী ও রুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী তানভীর আহমেদ আবির লে. সেলিম হলে ১৫ সিরিজের বেশ কয়েকজন কর্মী নিয়ে থাকতেন। তবে তাদের অধিকাংশই অবৈধভাবে হলে থাকতেন। সম্প্রতি ওই কক্ষগুলোতে নতুনভাবে সিট বরাদ্দ দেয় হল কর্তৃপক্ষ। বরাদ্দকৃত সবাই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের বর্তমান সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের অনুসারী।
অবৈধভাবে থাকা ওইসব ছাত্রলীগ কর্মীদের হল ছেড়ে চলে যেতে বলে নতুন বরাদ্দ পাওয়া ছাত্রলীগ কর্মীরা। হল প্রশাসনও তাদেরকে হল ছেড়ে দিতে বললেও তারা হলে অবস্থান করে। রবিবার সকালে হল প্রশাসনের সাথে বাক-বিতণ্ডতাও হয় আবিরের। পরে রাত ৮টার দিকে ওই কক্ষগুলোতে অবস্থান করা ছাত্রলীগ কর্মীদের সাথে কক্ষ বরাদ্দ পাওয়া ছাত্রলীগ কর্মীদের বাগবিতন্ডার একপর্যায়ে আবিরের সমর্থকদের ধাওয়া দেয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক অনুসারী ছাত্রলীগ কর্মীরা। এসময় আবিরের অনুসারী আল নাহিয়ান দৌড়ানোর সময় পড়ে গেলে তাকে রড দিয়ে মারধর করে ছাত্রলীগ কর্মীরা। পরে তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।
এদিকে আবিরের বিরুদ্ধে সেলিম হলের এক কর্মচারীকে প্রাণনাশের হুমকি ও হল প্রাধ্যক্ষকে হুমকি দেয়ার অভিযোগ ওঠে।
সেলিম হলের অফিস সহকারী আসিফ বলেন, রবিবার সকালে ছাত্রলীগ নেতা আবির এসে হল প্রাধ্যক্ষ স্যারকে অভিযোগ দিয়েছি দাবি করে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং সবার সামনে চেপে ধরে। যাওয়ার সময় সে আমাকে হুমকি দিয়ে বলে ‘তোর কোন বাপ আছে নিয়ে আয়, তোকে কেউ বাঁচাতে পারবে না’। এর পর থেকে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছি।
আবির তাকে কখনও হুমকি দিয়েছে কিনা জানতে চাইলে সেলিম হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক জহুরুল ইসলাম বলেন, না ঐভাবে আবির কিছু বলে নাই। আর আমি এ বিষয়ে মিডিয়াতে কিছু বলতে চাচ্ছি না।
অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতা তানভীর আহমেদ আবির বলেন, বর্তমান শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদক আমাকে রাজনৈতিকভাবে হেয় করার জন্য আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।
সিট দখলের বিষয়ে তিনি বলেন, রাজনীতি করতে গেলে সিটের প্রয়োজন হয়। আমরা বর্তমান কমিটির কাছে সিট চেয়েছিলাম, কিন্তু তারা আমাদের কোন সহযোগিতা করছেনা। আমরা যদি একই রাজনীতি করে থাকি, তাহলে ক্ষমতার কারণে অন্যজনকে এইভাবে হেয় করা কি ঠিক?
রুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী মাহফুজুর রহমান তপু বলেন, ছাত্রলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে সেলিম হলে কিছু শিক্ষার্থী অবৈধভাবে অবস্থান করছিলো। গতকাল (রবিবার) সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে ঝামেলা করায় তাদেরকে ধাওয়া দিয়েছে বলে শুনেছি।

উপরে