শিবগঞ্জে সেক্রেটারী নির্বাচিত হলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করবো : টিয়া

শিবগঞ্জে সেক্রেটারী নির্বাচিত হলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করবো : টিয়া

প্রকাশিত: ১৭-০২-২০২০, সময়: ১৯:২৬ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, শিবগঞ্জ : আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারী শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে দলীয় নেতাকর্মীগণ আমাকে যদি সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত করেন, তাহলে আমি দলের প্রতি আনুগত্যশীল হয়ে দলের মধ্যে অতীতের লবিং গ্রুপিংয়ের অবসানের ঘটিয়ে হাইব্রিডদের পরিবর্তে দলের জন্য নিবেদিতদের অধিকার নিশ্চিত ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতাদের মূল্যায়নের পাশাপাশি যোগ্যতার ভিত্তিতে ঐতিহাসিক ধারাবাহিকতায় দলকে সচল রাখার যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে জানিয়েছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তোহিদুল আলম টিয়া।

তিনি বলেন- তৃণমুল পর্যায়ে দলকে শক্তিশালী করে দেশে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে গণতন্ত্র আরো শক্তিশালী হয়ে জনগণের শাসন প্রতিষ্ঠিত থাকে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা পিতার ¯¦প্ন দূর্নীতি, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, নিরক্ষরতা, ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত সোনার বাংলা গড়তে ২০২১ ও ২০৪১ ভিশন বাস্তবায়নে গণতন্ত্রের মানসকন্যা মাদার অব হিউম্যানিটি জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত শক্তিশালী করতে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে যাবতীয় কাজ করবো। শিবগঞ্জ আধুনিক উপজেলায় পরিণত করবো ইনশাল্লাহ।

আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তোহিদুল আলম টিয়া বলেন- গেল ১৯৮৩ সাল থেকে এ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের আদর্শে আদর্শিত হয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পদে থেকে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি।

বর্তমানে হাজী এশান কারিগারি কামিল মাদ্রাসা ও শিবগঞ্জ উচ্চবিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি, শিবগঞ্জ উপজেলা এনজিও ফোরামের সভাপতি, আদিনা ফজলুল হক সরকারি কলেজের ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, জেলা ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির সহসভাপতি, গ্রামীন আলো বহুমুখী উন্নয়ন সংস্থার উপদেষ্টা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা ইতিহাস ও ঐতিহ্য ফাইন্ডেশনের উপদেষ্টা, শিবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা যুবলীগের সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক (স্থগিত ঘোষণাা) সহ বিভিন্ন পদে সুষ্ঠুভাবে দায়িত্ব পালন করে আসছি।

জিয়াউল হক জিয়া, পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল কালামসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা বলেন, ১৯৯০ সালে স্বৈরাচারী আন্দোলন, ১৯৯৬ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার দাবিতে আন্দোলন, ২০১৩-১৪ সালে যখন জামায়াত-বিএনপির তান্ডবের নির্যাতিত পৌর মেয়র কারিবুল হক রাজিন, দূর্লভপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রাজিব রাজু, তার ভাই রাকিব ও আবুল কালাম আজাদসহ সকল নির্যাতিদের পাশে থেকে সহযোগিতা করে এসেছি।

তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হলে দলকে সুসংগঠিত করে ২০২১ ও ২০৪১ এর ভিশনকে বাস্তবায়ন করতে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সহযোগিতা করতে পারবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। প্রসঙ্গত, আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারী কাউন্সিলে ১৫টি ইউনিয়ন, একটি পৌরসভা ও উপজেলা কাউন্সিল মিলে মোট ৫০১ জন কাউন্সিলার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে শিবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের অভিভাবক নির্বাচিত করতে যাচ্ছেন।

উপরে