প্রেমিকার কবরের পাশে গিয়ে প্রেমিকের আত্মহত্যা

প্রেমিকার কবরের পাশে গিয়ে প্রেমিকের আত্মহত্যা

প্রকাশিত: ১৩-০২-২০২০, সময়: ১৭:০৮ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে প্রেমিকার মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে তার কবরের পাশে গিয়ে বিষপান করেছিলেন এক যুবক; পরিত্রাণ পেয়েছেন তিনিও, নিয়েছেন পৃথিবী ছেড়ে চিরবিদায়।

বিষপান করে অসুস্থ হওয়ার পর মঙ্গলবার রাতে চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার পথে সোহাগ মল্লিক (১৮) নামে ওই যুবকের মৃত্যু হয়। মারা যাওয়া যুবক ও তার প্রেমিকা দুইজন দুই ধর্মাবলম্বীর ছিলেন।

উপজেলার জলিরপাড় ইউনিয়নের কলিগ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। সোগাগ ওই গ্রামের পরান মল্লিকের ছেলে। বুধবার মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

জলিরপাড় ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য অনন্দ মল্লিক জানান, কলিগ্রাম গ্রামের হিন্দু ধর্মাবলম্বী পরান মল্লিকের ছেলে সোহাগ মল্লিকের সঙ্গে প্রতিবেশী খ্রিষ্টান শান্ত শিকদারের মেয়ে মরিয়ম শিকদারের(১৫) দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু পরিবারের লোকজন হিন্দু-খ্রিস্ট্রানের প্রেম মেনে না নেয়ায় গত ৩১ জানুয়ারি প্রেমিকা মরিয়ম বিষপানে আত্মহত্যা করে।

তিনি জানান, পরে প্রেমিকার মৃত্যুর শোকে ১০ ফেব্রয়ারি রাতে সোহাগ প্রেমিকা মরিয়মের কবরের কাছে গিয়ে গোপনে বিষপান করে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গুরুতর অবস্থায় প্রথমে রাজৈর ও পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

অনন্দ মল্লিক জানান, সেখানে তার অবস্থা অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য মঙ্গলবার রাতে ঢাকা নেওয়ার পথে সোহাগের মৃত্যু হয়। বুধবার সকালে মৃতদেহ কলিগ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। পরে বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।

মুকসুদপুর উপজেলার সিন্দিয়াঘাট ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল বাশার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে বলে জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

Leave a comment

উপরে