নাচোলে গলায় গামছা পেঁচানো যুবকের লাশ উদ্ধার

নাচোলে গলায় গামছা পেঁচানো যুবকের লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত: ১৪-০১-২০২০, সময়: ১৯:০২ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে গলায় গামছা পেঁচানো এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।সোমবার বিকেল ৫টার দিকে হাঁকরইল (মোশান ভাসা) গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, উপজেলার নাচোল ইউনিয়নের হাঁকরইল গ্রামের জেন্টুর ছেলে মিন্টু (২৯) উপজেলার ঘিওন গ্রামের সেমাজুলের মেয়ে মুনিরা (২৫) এর সাথে ৯বছর পূর্বে বিয়ে হয়। মিন্টুর ২টি ছেলে সন্তান আছে।

প্রতিবেশীরা জানায় মিন্টু ও তার স্ত্রী মুনিরার মধ্যে এনজিও’র ঋণের কিস্তি ও নেশার কারণে প্রায়ই ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকতো।

নিহত মিন্টুর স্ত্রী মুনিরার দাবী তার স্বামী প্রায়ই নেশা করতো। এনজিও’র কিস্তি পরিশোধের কথা বললেই তাকে মারধোর করতো। ঘটনার দিন মিন্টু সারাদিন নেশা করেছিলো। এনজিওর কিস্তির টাকা জোগাড় করার জন্য অন্য পাড়ায় গিয়েছিল মুনিরা। ঘরে ফিরে স্বামীকে ফাঁসিতে ঝুলতে দেখে একাই দ্রুত ফাঁসির গামছা খুলে মুমুর্ষূ স্বামীকে নীচে নামায়। কিছুক্ষণ পরই মিন্টু মারা যায়।

অন্যদিকে নিহত মিন্টুর পিতা জেন্টুর অভিযোগ, ছেলে ও ছেলের বউ এর মধ্যে ঝগড়ার এক পর্যায়ে দু’জনে মারামারি করে। বউ এর উপর অভিমান করে তার ছেলে আত্মহত্যা করেছে। সে প্রতিবেশীদের নিয়ে মুমুর্ষু ছেলেকে নামিয়েছেন। নামানোর কিছুক্ষণের মধ্যেই ছেলে মারা যায়। কিন্তু নিহতের স্ত্রী মুনিরা ও পিতা জেন্টুর ভাষ্য- গলায় গামছা পেঁচিয়ে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে আত্মহত্যার চেষ্টা ও মুমুর্ষূ মিন্টুকে ফাঁসি থেকে নামানোর ঘটনা মিলাতে পারছেছেনা পুলিশ ও প্রতিবেশীরা।

এ ব্যাপারে নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সোমবার রাতে লাশ উদ্ধার করে মঙ্গলবার ময়নাতদন্তের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে মৃত্যুর কারণ। এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।

Leave a comment

উপরে