মান্দায় হঠাৎ গুজবে অস্থির লবনের বাজার

মান্দায় হঠাৎ গুজবে অস্থির লবনের বাজার

প্রকাশিত: ১৯-১১-২০১৯, সময়: ২০:২৩ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, মান্দা : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ হঠাৎ গুজবে নওগাঁর মান্দায় অস্থির হয়ে উঠেছে লবনের বাজার। মঙ্গলবার বিকেল থেকে উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজারে কয়েকগুন বেশি দামে লবন বিক্রি শুরু হওয়ায় ভোক্তারা বিচলিত হয়ে পড়েন। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়িদের এ কারসাজি বন্ধে বিকেল থেকে অভিযানে নেমেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

এ ঘটনার পর সন্ধ্যায় প্রসাদপুর বাজার বণিক সমবায় সমিতির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেন ইউএনও আব্দুল হালিম। পরে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে প্রসাদপুর বাজার, সতিহাটসহ বিভিন্ন হাট-বাজারে মাইকিং শুরু করেছে উপজেলা প্রশাসন। তাৎক্ষনিক হস্তক্ষেপে নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে অসাধু ব্যবসায়িদের এ কারসাজি।

জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেল থেকে উপজেলার দেলুয়াবাড়ি, সতিহাট, জোতবাজার, পাঁজরভাঙ্গা, চৌবাড়িয়া, সাবাইহাট, গোপালপুর বাজারসহ বিভিন্ন বাজারে বর্তমান বাজারদর থেকে কয়েকগুন বেশি দামে লবন বিক্রি শুরু করেন ব্যবসায়িরা। মুহুর্তে এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন মুদিখানাসহ লবন বিক্রির দোকানগুলোতে মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়েন।

এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির লবন ৮০ টাকা কেজিতে বিক্রি শুরু করেন অসাধু ব্যবসায়িরা। খোলা লবন ২০-২৫ টাকা কেজিতে বিক্রি হতে দেখা গেছে।

এদিকে লবন বেশি দামে বিক্রির সংবাদে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল হালিম মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার সতিহাট ও প্রসাদপুর বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। এসময় লবন বেশি দামে বিক্রি না করার জন্য ব্যবসায়িদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন তিনি।

ইউএনও আব্দুল হালিম জানান, মান্দায় লবনের কোন ঘাটতি নেই। প্রত্যেকটি গুদাম ও ব্যবসায়িদের নিকট পর্যাপ্ত লবনের মজুদ রয়েছে। আতঙ্কিত হবার কিছু নেই। এখনও বেশি দামে লবন বিক্রির পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি। কিছু অসাধু চক্র গুজব ছড়িয়ে লবনের দাম বাড়ানোর চেষ্টা করছে। ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত করতে উপজেলার প্রত্যেকটি হাট-বাজারে অভিযান পরিচালনাসহ নিয়মিত বাজার মনিটরিং করা হবে বলেও জানান তিনি।

এসময় মান্দা থানার অফিসার ইনচাজং (ওসি) মোজাফফর হোসেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রেজাউল করিম, মান্দা থানার উপপরিদর্শক আমিরুল ইসলাম, প্রসাদপুর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি আকতারুজ্জামান আল মনসুর, সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন মান্দার মডেল কেয়ার টেকার আবুল কাসেমসহ স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মিরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a comment

উপরে