আটকের পর বন্দুকযুদ্ধে যুবক নিহত

আটকের পর বন্দুকযুদ্ধে যুবক নিহত

প্রকাশিত: ১৮-০৯-২০১৯, সময়: ১০:৫৬ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জে শহরে আটকের পর র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম তুহিন ওরফে চাপাতি তুহিন।

র‌্যাবের দাবি, নিহত চাপাতি তুহিন এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে মাদক, হত্যাসহ চারটি মামলা রয়েছে। তুহিন দেওভোগ শান্তিনগর এলাকার কাওসার হোসেনের ছেলে।

বুধবার ভোর ৪টার দিকে শহরের সৈয়দপুর এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

কালীবাজারের ক্যাম্প ইনচার্জ এএসপি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, কুমিল্লার দেবিদ্বার থেকে মঙ্গলবার রাতে সন্ত্রাসী চাপাতি তুহিনকে আটক করে র‌্যাব। তার দেয়া তথ্যানুযায়ী বুধবার গভীর রাতে নগরীর সৈয়দপুর এলাকায় অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার করতে যায় র‌্যাব।

এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে তুহিনের সহযোগীরা তাকে ছাড়িয়ে নেয়ার চেষ্টা করে এবং র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। পরে সহযোগীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থলে তুহিনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়।

গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

এর আগে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হাসান বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড ছিলেন চাপাতি তুহিন। তার বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজিসহ চারটি মামলা রয়েছে।

নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

উপরে