র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ সন্ত্রাসী গিট্টু হৃদয় নিহত

র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ সন্ত্রাসী গিট্টু হৃদয় নিহত

প্রকাশিত: ১১-০৯-২০১৯, সময়: ১৪:২০ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সোনারগাঁওয়ের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী, শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ও হত্যাসহ ১১ মামলার আসামি হৃদয় ওরফে গিট্টু হৃদয় (৩০) মঙ্গলবার দিবাগত রাতে র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

এ সময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে মো. অহিদুল ও সৌরভ রায় নামে র‍্যাবের দুই সদস্যও আহত হন।

নিহত গিট্টু হৃদয় উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের হাবিবপুর এলাকার মৃত সবুজ মিয়ার ছেলে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আনুমানিক পৌনে ৩টার সময় পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি গ্রামের পাশে ওই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে র‍্যাব-১১ এর এএসপি মশিউর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের চেঙ্গাকান্দি এলাকায় একদল দুষ্কৃতকারী ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন খবর পেয়ে র‍্যাব-১১ একটি টিম সেখানে অভিযান চালায়।

এ সময় মহাসড়কের পাশে থাকা ঝোঁপ থেকে অতর্কিত আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে র‌্যাবের ওপর হামলা করে গিট্টু হৃদয় ও তার সহযোগীরা।

আত্মরক্ষার্থে র‍্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালালে দুষ্কৃতকারীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে র‍্যাব গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গিট্টু হৃদয় ও তার তিন সহযোগীকে আটক করে র‌্যাব।

আটককৃতরা হলেন, জহিরুল ইসলাম ডলার, সেলিম ও প্রাইভেটকারের চালক। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, ১টি চাপাতি, ১টি রাম দা ও ৫০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার ও সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি জব্দ করা হয়।

আহতাবস্থায় গিট্টু হৃদয়কে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

সোনারগাঁও থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির জানান, মাদক বিক্রেতা গিট্টু হৃদয় সোনারগাঁও থানার মাদক ব্যাসায়ীদের তালিকায় ১ নম্বর আসামি ও উপজেলার শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার নামে সোনারগাঁও থানায় হত্যা মামলাসহ ১৭টি মামলা রয়েছে।

চাঁদা না দেয়ায় গত ২৭ জুন মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় একটি চাইনিজ রেস্তোরাঁয় শিশুসন্তানের সামনে পিরোজপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল হক ভূঁইয়ার ছেলে ব্যবসায়ী রাসেল ভূঁইয়াকে প্রকাশ্যে গিট্টু হৃদয় ও তার সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে এবং পায়ের রগ কেটে হত্যার চেষ্টা করে।

ওই ব্যবসায়ী আড়াই মাস ধরে বিদেশে চিকিৎসা নিয়েও এখন পর্যন্ত সুস্থ হননি। শীর্ষ সন্ত্রাসী গিট্টু হৃদয়কে ধরিয়ে দেয়ার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১০ হাজার টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছিল।

উপরে