রামদা দিয়ে বাবা-ছেলেসহ ৩ জনকে কুপিয়ে হত্যা

রামদা দিয়ে বাবা-ছেলেসহ ৩ জনকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশিত: ১৪-০৮-২০১৯, সময়: ১৬:১৪ |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় জমিজমা ও মুরগির খামারের দুর্গন্ধকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে বাবা-ছেলে ও ভাতিজাসহ তিনজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন পাঁচজন।

আহতদের মধ্যে মাজহারুল ও খায়রুলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। তারা সম্পর্কে আপন ভাই।

বুধবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলার বরহিত ইউনিয়নের কাঁঠাল ডাংড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতর হলেন- হাসিম উদ্দিন (৭০), তার ছেলে জহিরুল ইসলাম (২৭) ও হাসিমের ভাতিজা আজিজুল (৩৫)।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আহমেদ কবীর জানান, চাচা হাশিম উদ্দিনের সঙ্গে জমিজমা ও মুরগির খামারের বিষ্ঠার দুর্গন্ধ নিয়ে ভাতিজা আজিজুলের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। বুধবার সকাল ৮টার দিকে এ দুটি বিষয় নিয়ে চাচা-ভাতিজার মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে উভয় পক্ষ ধারালো দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

তিনি বলেন, সংঘর্ষে উভয় পক্ষের তিনজনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন পাঁচজন। এদের মধ্যে মাজহারুল ও আজহারুল নামে দুই ভাইয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

ওসি জানান, ঘটনার খবর পেয়ে ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি ও পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

পুলিশের ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি নিবাস চন্দ্র মাঝি বলেন, ঘটনাস্থল থেকে রক্তমাখা রামদা ও সাতটি বল্লমসহ ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হবে।

Leave a comment

উপরে