ছাত্রী সাবা হত্যার প্রতিবাদে জয়পুরহাটে মানববন্ধন

ছাত্রী সাবা হত্যার প্রতিবাদে জয়পুরহাটে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ১৯-০৫-২০১৯, সময়: ১২:২৫ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, জয়পুরহাট : ঢাকার একটি বেসরকারী বিশ^বিদ্যালয়ের অধ্যয়নরত ছাত্রী নওশিন আক্তার সাবার হত্যার প্রতিবাদে জয়পুরহাট শহরের জিরোপয়েন্টে (পাঁচুর মোড়) এলাকায় ঘন্টা ব্যাপি মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ নারী মুক্তি সংসদ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন। ওই ছাত্রীর বাড়ী জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলার পুনট গ্রামের। ওই ঘটনায় পুলিশ সাবা হত্যার বিষয়টি প্রাথমিক ভাবে তার স্বামীকে সন্দেহ করে। পরে মামলা হলেও এখন পর্যন্ত কোন আইনি সহায়তা পায়নি তার পরিবার। এর প্রতিবাদে শনিবার দুপুরে জয়পুরহাট শহরের মানব বন্ধন করেছে বাংলাদেশ নারী মুক্তি সংসদ নামে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের লোকজন। এ সময় মানববন্ধনে নারী মুক্তি সংসদের সর্বস্তরের সদস্য, নিহত নওশিন আক্তার সাবা’র স্বজনরা এবং বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ অংশ গ্রহন করেন। মানববন্ধন চলাকালে প্রতিবাদি কন্ঠে বক্তৃতা করেন সংগঠনের সভাপতি সেলিমা দিল আফরোজ, সাধারন সম্পাদক ফরিদা চৌধূরী, সাবা’র বাবা অধ্যাপক মাহমুদুল হাসান, বোন উম্মে খাতুনসহ অন্যরা।

এ সময় বক্তারা জানান, সাবার স্বামী একজন সফট্ওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। তার নাম সেলিম আহম্মেদ। বিবাহের পর থেকে তারা স্বামী-স্ত্রী মিলে ঢাকার মধ্যবাড্ডায় বসবাস করতেন। সেখানে অবস্থান করাকালিন সময়ে গত ১২ মে সাবা তার স্বামীর নির্যাতনে নিহত হয় বলে পরিবারের অভিযোগ। তখন সাবা আত্মহত্যা করেছে এমন গুজব তুলেছে তার স্বামী ও পরিবারের লোকজন। অবশ্য সাবা’র মৃতদেহ ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেখে তখন পালিয়ে যায় স্বামী। এ হত্যাকান্ডের পর এখনো সাবা’র স্বামীকে গ্রেফতার না করা হয়নি। এমনকি সাবার পরিবারের লোকজন কোন আইনী সহায়তা পায়নি বলেও অভিযোগ তার স্বজনদের। অবিলম্বে সাবা’র ঘাতক স্বামীকে গ্রেপ্তার করে দ্রুত বিচারের মাধ্যমে শাস্তির দাবী করেন বক্তারা। তা না হলে পরবর্তীতে আরও বড় ধরণের কর্মসূচী দেওয়া হবে বলেও হুশিয়ারী দেন তারা।

উপরে