তাড়াশে সেচকার্যে অতিরিক্ত টাকার প্রতিবাদে কৃষকদের বিক্ষোভ

তাড়াশে সেচকার্যে অতিরিক্ত টাকার প্রতিবাদে কৃষকদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ০৬-০২-২০১৯, সময়: ১৪:৫৬ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, তাড়াশ : সিরাজগঞ্জের তাড়াশে একটি গভীর নলকূপ স্কীমে ইরি-বোরো আবাদে সেচের জন্য অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন ভুক্তভোগী কৃষকরা। বুধবার সকালে ওই স্কীমের আবাদি জমির আইলে দাড়িয়ে উপজেলার তালম ইউনিয়নের বরইচড়া গ্রামের ছাইদুর ইসলাম নামে এক সেচ পরিচালনাকারীর বিরুদ্ধে তারা এ বিক্ষোভ করেন।

এসময় কৃষক আব্দুল মাজেদ, আব্দুস সামাদ, জয়নাল উদ্দিন, আসলাম আলী, ফজলু রহমান, আব্দুল লতিব, শামিম হোসেন, আব্দুল বারিক, নায়েব আলী, শহিদুল ইসলাম, কাবেজ আলী, লাল মিঞাসহ অনেকে বলেন, শেরপুর উপজেলা ডেভেলপমেন্ট ফোরাম নামে একটি প্রতিষ্ঠান থেকে প্রতিবছর লীজ নিয়ে নিয়ম বহির্ভূতভাবে তাদের থেকে বিঘা প্রতি ১ হাজার ৭শ’ টাকা নিচ্ছেন। অথচ পাশ্ববর্তী শেরপুর, সিংড়া, গুরুদাসপুরসহ অন্যান্য উপজেলায় গভীর নলকূপ স্কীমে সেচের জন্য ১ হাজার থেকে ১২শ’ টাকা নেওয়া হচ্ছে। বিকল্প সেচ ব্যবস্থা না থাকায় তারা অতিরিক্ত টাকা গুণতে বাধ্য হচ্ছেন।

এদিকে, অভিযুক্ত ছাইদুর ইসলাম বলেছেন, কৃষকদের অভিযোগ সত্য নয়। আমার থেকে গভীর নলকূপটির লীজ ছাড়িয়ে নেওয়ার জন্য একটি মহল কতিপয় কৃষকদে দিয়ে এসব করাচ্ছেন। তাদের থেকে বিঘা প্রতি ১২-১৩শ’ টাকা নেওয়া হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাইফুল ইসলাম জানান, গভীর নলকূপ স্কীমে সেচের জন্য ইরি-বোরো আবাদে ১ হাজার থেকে ১২শ’ টাকাই যথেষ্ট।

Leave a comment

আরও খবর

  • মান্দায় কৃষক প্রশিক্ষণ
  • আলু তুলছেন চাষিরা, দামে হতাশ
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে বড়ি তৈরির ধুম
  • রাণীনগরে আগাছানাশক ছিটিয়ে বর্গাচাষী কৃষকের জমির ধান নিধন
  • রাজশাহীতে অধুনিক পদ্ধতিতে টমেটো চাষে সাফল্য
  • জাগেশ্বর গ্রামের উপার্জনের প্রধান উপায় পান চাষ
  • সাপাহারে বোরো রোপনে ব্যস্ত কৃষকরা
  • রাণীনগরে আমের মুকুলের মৌ মৌ গন্ধে মুখরিত
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে সবজীর বাজারে ধস
  • বদলগাছীতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৭শ ৮০হেক্টর জমিতে বেশি গম চাষবাদ
  • তাড়াশে সেচকার্যে অতিরিক্ত টাকার প্রতিবাদে কৃষকদের বিক্ষোভ
  • আত্রাইয়ে ভুট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে বোরো ধান চাষ চলছে
  • আম বাগান পরিচর্যায় ব্যস্ত চাষীরা
  • মান্দায় বায়োচারের গবেষণা প্লট পরিদর্শনে রাবির গবেষকদল


  • উপরে