বাগাতিপাড়ায় বাল্যবিয়ে পন্ড, কাজীর জেল

প্রকাশিত: ২৪-০১-২০১৯, সময়: ১৮:৪১ |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর : নাটোরের বাগাতিপাড়ায় বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে নবম শ্রেণীর এক ছাত্রী। এসময় ওই বিয়ে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগে পুলিশের হাতে আটক আমানুর রহমান নামে এক কাজীকে ২০ দিনের কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

বুধবার রাতে উপজেলার নন্দীকুজা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সাজাপ্রাপ্ত কাজী আমানুর রহমান উপজেলার দয়ারামপুরের কাজীপাড়া আহম্মাদিয়া আলিম মাদরাসার শরীরচর্চা বিষয়ের শিক্ষক এবং আসন্ন উপজেলা নির্বাচনের ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানা যায়, নাটোর জেলার লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়ার চকনাজিরপুর গ্রামের মোমিন উদ্দিনের মেয়ে ফাতেমাতুজ্জোহরা ওরফে মনিকা (১৬) এর বিয়ে ঠিক হয় রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলার এক যুবকের সাথে। মনিকা কাদিরাবাদ ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী। বুধবার রাত সাড়ে দশটায় বাগাতিপাড়ার নন্দীকুজা গ্রামে মোমিন উদ্দিনের ভাড়া বাসায় ওই বিয়ের আয়োজন চলছিল।

বাগাতিপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরিন বানু খবর পেয়ে পুলিশসহ বিয়ে বাড়িতে গিয়ে হাজির হন। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে কনের বাবা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পরে বিয়ে দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগে কাজী আমানুর রহমানকে আটক করে। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাসরিন বানু ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে তাকে ২০ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন।

উপরে