মান্দার গোয়ালমান্দা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাফল্য

প্রকাশিত: 19-05-2017, সময়: 19:29 |
Share This

নিজস্ব প্রতিবেদক, মান্দা : নেই ভালমানের একাডেমিক ভবন। শাখা শ্রেণিতে রয়েছে শিক্ষক সংকট। চালু হয়নি কম্পিউটার ল্যাব। এরপরও পাবলিক পরীক্ষার ফলাফলে ধারাবাহিক সাফল্যে অব্যাহত রেখেছে নওগাঁর মান্দা উপজেলার গোয়ালমান্দা উচ্চ বিদ্যালয়। এসএসসি, জেএসসি ও বৃত্তি প্রাপ্তির ক্ষেত্রে অসাধারন সাফল্য অর্জন করে চলেছে প্রতিষ্ঠানটি। সম্প্রতি রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক প্রকাশিত এসএসসির বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফলে এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ৯ জন শিক্ষার্থী বৃত্তি লাভ করেছে।
প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক সেকেন্দার আলী প্রামানিক জানান, ২০১৬ সালে এ প্রতিষ্ঠান থেকে ৭২ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে ২৭ জন শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ লাভ করে। শতভাগ পাশসহ অবশিষ্ট শিক্ষার্থীরাও কৃতিত্বের সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়েছিল। জিপিএ ৫ পাওয়া ২৭ শিক্ষার্থীর মধ্যে গত সোমবার প্রকাশিত ফলাফলে ৯ জন সাধারণ গ্রেডে বৃত্তি লাভ করেছে। এর মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৩ জন ও মানবিক বিভাগ থেকে ৬ জন শিক্ষার্থী এ কৃতিত্ব অর্জন করে।
প্রধান শিক্ষক আরো জানান, ২০১৭ সালের এসএসসি পরীক্ষায় ১১০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ৪৫ জন শিক্ষার্থী। অবশিষ্ট শিক্ষার্থীরা এ গ্রেড লাভ করে। প্রতিষ্ঠানটির ধারাবাহিক সাফল্যের চিত্র তুলে ধরে প্রধান শিক্ষক বলেন, ২০১৫ সালে জেএসসি পরীক্ষায় ৯৬ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৫১ জন জিপিএ ৫ ও অন্যরা এ গ্রেড পেয়েছিল। ওই বছর ০৯ জন শিক্ষার্থী বৃত্তি লাভ করে। ২০১৬ সালে ৯৬ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৫৯ জন জিপিএ ৫সহ বৃত্তি লাভ করেছিল ১০ জন শিক্ষার্থী। এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে প্রতিষ্ঠানটি নওগাঁ জেলায় বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠাগুলোর মধ্যে ২০১০ সালে চতুর্থ, ২০১১ সালে তৃতীয় ও ২০১২ সালে দ্বিতীয় স্থান দখল করে।
প্রধান শিক্ষক সেকেন্দার আলী বলেন, প্রতিষ্ঠানটিতে বর্তমানে ৫২৮ জন শিক্ষার্থীর নিয়মিত পাঠদান চলছে। ৬ষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত আলাদা শাখার মাধ্যমে চালিয়ে নেওয়া হচ্ছে পাঠদান কার্যক্রম। এসব শাখায় এখন পর্যন্ত কোটা অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া সম্ভব হয়নি। পর্যাপ্ত শিক্ষক না থাকায় কর্মরত শিক্ষকদের বাড়তি দায়িত্ব দিয়ে এ সাফল্য ধরে রাখা হয়েছে। বিদ্যালয়টিতে এখন পর্যন্ত কম্পিউটার ল্যাব চালু করা সম্ভব হয়নি। কম্পিউটার ল্যাব চালু করা হলে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধিসহ ফলাফলে আরো উন্নতি ঘটবে বলে আশা প্রকাশ করেন প্রধান শিক্ষক।
বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি নগেন্দ্রনাথ প্রামানিক জানান, শত প্রতিকুলতার মধ্য দিয়েও প্রতিষ্ঠানটি সাফল্য ধরে রেখেছে। ইতোমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি অত্র এলাকায় বেশ সুনাম অর্জন করেছে। ম্যানেজিং কমিটির সঠিক তত্ত্বাবধান ও শিক্ষকদের নিরলস প্রচেষ্টায় প্রতিবছরই প্রতিষ্ঠানটি পাবলিক পরীক্ষায় ভাল ফলাফল করছে। আগামিতে সাফল্যের এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

উপরে