ধান কাটার আগেই কৃষকের তালিকা করবে সরকার

ধান কাটার আগেই কৃষকের তালিকা করবে সরকার

প্রকাশিত: 10-09-2019, সময়: 14:55 |
Share This

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : কৃষকের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিতে সরকারি সংগ্রহের ক্ষেত্রে ধান কাটার এক মাসে আগে তিন শ্রেণিতে কৃষকদের তালিকা করে তা প্রকাশ করা হবে। সেই তালিকা ধরে লক্ষ্যমাত্রার ৫০ শতাংশ ধান ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের কাছ থেকে সংগ্রহ করা হবে।

আগামী বোরো মৌসুম থেকে এ পদ্ধতিতে অভ্যন্তরীণ বাজার থেকে ধান সংগ্রহ করা হবে। কৃষি ও খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে এমন তথ্য জানা গেছে। এছাড়া কৃষকদের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিতে নানা উদ্যোগ নিয়ে দুই মন্ত্রণালয় সমন্বিতভাবে কাজ করছে বলেও জানা গেছে।

এবারের বোরো মৌসুমে কৃষকরা ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ার বিষয়টি ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়। অবশেষে সরকার ভর্তুকি দিয়ে সারাদেশে ধান ক্রয়ের যে কর্মসূচি গ্রহণ করে সেখানে কৃষকের নয়, সিন্ডিকেটের ধানেই ভরে খাদ্যগুদাম এমন অভিযোগও আসে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এ বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। সংশ্লিষ্টদের এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়ার নির্দেশ দেন।

কৃষি সচিব মো. নাসিরুজ্জামান বলেন, ‘আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে যে, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাদের মাধ্যমে ধান কাটার অন্তত এক মাস আগে তিন শ্রেণিতে (প্রান্তিক, মাঝারি ও বৃহৎ) কৃষকদের তালিকাভুক্ত ও কার্ড বিতরণ করা হবে। ওই তালিকা জনসম্মুখে প্রকাশ করা হবে এবং তালিকা ব্যবহার করে খাদ্য মন্ত্রণালয় ধান কিনবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা ময়েশ্চার মিটার দেব। ধানের আর্দ্রতা পরিমাপক যন্ত্রের (ময়েশ্চার মিটার) প্রাপ্যতা ইউনিয়ন-পর্যায়ে নিশ্চিত করা হবে। ময়েশ্চার মিটারের মাধ্যমে আগেই ধানের আর্দ্রতা পরীক্ষা করা হবে, কৃষকের ধানটা নেয়ার উপযুক্ত কি-না। অনেক সময় দেখা যায় কৃষক ধান নিয়ে গুদামে যায়, তখন দেখা যায় আর্দ্রতার জন্য ধান নেয়া যায় না। কৃষককে আবার কষ্ট করে ধানটা ফিরিয়ে নিতে হয়।’

নাসিরুজ্জামান বলেন, কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে মিলগেটে বা হাট-বাজারে ধান সংগ্রহ করে মিলিংয়ের জন্য সরাসরি চালকলে ধান পাঠানো হবে। ধান কেনার আগে এলাকায় এ বিষয়ে ব্যাপক প্রচারণা চালানো হবে। ধান কেনার সময় শতকরা ২০ ভাগ ধান বৃহৎ চাষী, ৩০ ভাগ ধান মাঝারি চাষী এবং ৫০ ভাগ ধান প্রান্তিক চাষীর কাছ থেকে কেনা হবে বলে আমরা সবাই একমত হয়েছি। আশা করি, আগামী বোরো সিজনেই এগুলো করতে পারব। আগামী বোরো-কে সামনে রেখেই আমরা এগোচ্ছি।

উপরে